পুলিশের চাঁদাবাজি বন্ধে ৭ দিনের আল্টিমেটাম

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি নারায়ণগঞ্জ
প্রকাশিত: ০৬:৪০ পিএম, ২১ জানুয়ারি ২০১৮ | আপডেট: ০৬:৪৯ পিএম, ২১ জানুয়ারি ২০১৮

দেশের বিভিন্ন সড়ক-মহাসড়কে ট্রাফিক ও হাইওয়ে পুলিশের চাঁদাবাজিসহ হয়রানি বন্ধের প্রতিবাদে নারায়ণগঞ্জের ট্যাংক-লরি শ্রমিক ইউনিয়ন মালিক সমিতি বিক্ষোভ মিছিল ও কর্মবিরতি পালন করেছে।

ট্যাংক-লরি শ্রমিকদের প্রায় তিন ঘণ্টা কর্মবিরতির কারণে ডিপো থেকে তেল লোড করা বন্ধ রাখায় দেশের বিভিন্ন এলাকায় তেল সাপ্লাই বন্ধ ছিল। পরে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনা করে কেন্দ্রীয় নেতারা বিষয়টির সমাধানের আশ্বাস দিলে তাদের কার্যক্রম প্রত্যাহার করে।

রোববার সকালে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ সড়কের ফতুল্লায় যমুনা ও মেঘনা ডিপোর ট্যাংক-লরি মালিক শ্রমিক ঐক্য পরিষদের উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল বের করে। বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভায় ফতুল্লার নেতৃবৃন্দ ছাড়াও সিদ্ধিরগঞ্জের গোদনাইল শাখার পদ্মা ও মেঘনা ডিপোর নেতারা অংশ নেয়।

narayanganj

প্রতিবাদ সভায় ফতুল্লা যমুনা ডিপোর সাংগঠনিক সম্পাদক মো. সালাউদ্দিনের আয়োজনে ও মেঘনা ডিপোর সভাপতি মো. আফসার উদ্দিন আফসুর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ট্যাংক-লরি মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মতিন মুন্সী।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রেজা, ফতুল্লা ডিপোর মালিক সমিতির সভাপতি সাইদুর রহমান রিপন, কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও গোদনাইল পদ্মা ডিপোর সভাপতি জাহিদ হোসেন প্রমুখ।

এসময় বক্তারা বলেন, দেশের বিভিন্নস্থানে ট্যাংক-লরি দিয়ে তেল নিয়ে যাওয়ার পথে ট্রাফিক পুলিশ ও হাইওয়ে পুলিশ গাড়ি আটক করে চাঁদা দাবি করে। তাদের দাবিকৃত চাঁদা না দিলে নানাভাবে হয়রানিসহ গাড়ি আটক করে মামলা দায়েরও করে। পুলিশের চাঁদা না দিলেই তারা মামলা দিয়ে হয়রানি করছে। ওইসব অসাধু ব্যক্তিদের ৭ দিনের আল্টিমেটাম দেয়া হলো। তারা যদি এ ধরনের কর্মকাণ্ড থেকে বিরত না থাকেন, তাহলে আগামীতে দেশব্যাপী দুর্বার আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।

শাহাদাত হোসেন/এমএএস/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :