কিশোরী ধর্ষণ মামলায় যুবকের যাবজ্জীবন

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি শেরপুর
প্রকাশিত: ০৫:৪৫ পিএম, ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮
ছবি-প্রতীকী

শেরপুরের নকলায় এক কিশোরীকে ধর্ষণের দায়ে রবিউল ইসলাম (২২) নামে এক যুবকের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। সোমবার বিকেলে আসামির অনুপস্থিতিতে এ রায় দেন শিশু আদালতের বিচারক অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ মোসলেহ উদ্দিন।

দণ্ডপ্রাপ্ত রবিউল নকলা উপজেলার কৈয়াকুড়ি কান্দাপাড়া গ্রামের নূর ইসলামের ছেলে।

শিশু আদালতের পিপি অ্যাডভোকেট গোলাম কিবরিয়া বুলু রায়ের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ধর্ষক রবিউলকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৬ মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

মামলার বরাত দিয়ে তিনি জানান, ২০১৫ সালের ৩০ জুলাই সন্ধ্যায় নকলা উপজেলার কৈয়াকুড়ি কান্দাপাড়া গ্রামের ৫ম শ্রেণির ছাত্রী (১৪) পাশের বাড়ি থেকে মোবাইল ফোন চার্জ করে নিজবাড়ী ফিরছিল। এ সময় প্রতিবেশী রবিউল ইসলাম তাকে জোরপূর্বক অপহরণ করে পার্শ্ববর্তী পাটখেতে নিয়ে ধর্ষণ করে। মেয়েটি বাড়িতে ফিরে স্বজনদের ঘটনা জানালে পরদিন তার মা বাদী হয়ে ধর্ষক রবিউল ইসলামকে একমাত্র আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে নকলা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

তদন্ত শেষে পুলিশ ওই বছরের ৩০ নভেম্বর রবিউলের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে। মামলার একপর্যায়ে অভিযুক্ত রবিউল আদালত থেকে জামিনে বের হয়ে এলেও শুনানি চলার একপর্যায়ে পালিয়ে যান। বাদী, ভিকটিম, চিকিৎসক ও জবানবন্দি গ্রহণকারী ম্যাজিস্ট্রেটসহ ৮ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আদালতের বিচারক সোমবার ধর্ষক রবিউলের যাবজ্জীবন সাজার রায় দেন।

পিপি অ্যাডভোকেট গোলাম কিবরিয়া বুলু রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, এ রায় নারী ও নির্যাতন রোধে দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে।

হাকিম বাবুল/আরএআর/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :