সংখ্যালঘুরা কারো ভোট ব্যাংক নয়

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি কক্সবাজার
প্রকাশিত: ০৮:৩০ এএম, ১৬ মার্চ ২০১৮

যেকোনো নির্বাচন সংখ্যালঘুদের জন্য অভিশাপ উল্লেখ করে বাংলাদেশ হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রানা দাশ গুপ্ত বলেছেন, সংখ্যালঘুরা কারো ভোট ব্যাংক নয়। যদি কেউ মনে করে থাকে সংখ্যালঘুরা কারো ভোট ব্যাংক তাহলে তারা এখনো বোকার রাজ্যে বাস করছে। যেকোনো নির্বাচন পূর্ব ও পরবর্তী সময়ে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের উপর নির্যাতন-অত্যাচারের মাত্রা বেড়ে যায়। যা মোটেও শোভনীয় নয়।

কক্সবাজার শহরের স্বরস্বতী বাড়ি প্রাঙ্গণে বৃহস্পতিবার রাতে অনুষ্ঠিত জেলা হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের কর্মী সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

আসন্ন সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ধর্মীয়, জাতিগত সংখ্যালঘু ও আদিবাসী জনগোষ্ঠীর প্রাণের ৭ দফা এবং নির্বাচনকে সামনে রেখে ৫ দফা দাবি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে আয়োজিত এ সমাবেশে রানা দাশগুপ্ত আরো বলেন, স্বাধীনতার এত বছর পরও সংখ্যালঘুদের উপর অত্যাচার-নির্যাতন চলছে। সহ্য করতে হচ্ছে বঞ্চনাও। তবুও বলব, দেশ ত্যাগ করার জন্য মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেয়নি সংখ্যালঘু সম্প্রদায়।

কক্সবাজার জেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি মণ্ডলীর সদস্য অ্যাডভোকেট দিপংকর বড়ুয়ার সভাপতিত্বে সমাবেশে প্রধান বক্তা ছিলেন বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক উত্তম কুমার চক্রবর্তী।

জেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক প্রিয়তোষ শর্মা চন্দন ও সদর উপজেলার সিনিয়র সহ-সভাপতি সাংবাদিক বলরাম দাশ অনুপমের যৌথ সঞ্চালনায় সমাবেশে বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সহ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক সুপ্ত ভূষণ বড়ুয়া, ফেনী জেলার সভাপতি সুকদেব নাথ তপন, ধর্মীয় জাতিগত সংখ্যালঘু সংগঠন সমূহের জাতীয় সমন্বয় কমিটির জেলা শাখার আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট রনজিত দাশ।

সমাবেশে জেলা, উপজেলা ও পৌর হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের নেতৃবৃন্দ, পূজা কমিটির নেতৃবৃন্দ ও আদিবাসী ফোরামের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সভার শুরুতে গীতাপাঠ করেন জগদীশ শর্মা ও ত্রিপিটক পাঠ করেন রুবেল বড়ুয়া।

সায়ীদ আলমগীর/এফএ/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :