সাংগ্রাই উৎসবে মেতেছে খাগড়াছড়ি

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি খাগড়াছড়ি
প্রকাশিত: ০৭:২২ পিএম, ১৪ এপ্রিল ২০১৮

পাহাড়ে বসবাসকারী মারমা সম্প্রদায়ের এতিহ্যবাহী সাংগ্রাই উৎসবে মেতেছে পাহাড়ী জনপদ খাগড়াছড়ি। মারমা সম্প্রদায়ের পাশাপাশি বিভিন্ন ধর্মাবলম্বীদের অংশগ্রহণে সার্বজনীন উৎসবে পরিণত হয়েছে সাংগ্রাই উৎসব। আর এ উৎসবকে ঘিরে পাড়ায় পাড়ায় আয়োজন করা হয়েছে ওয়াটার ফেস্টিবল বা জলকেলি উৎসব।

Sanhai-1

নববর্ষের প্রথম দিন শনিবার দুপুরের দিকে প্রদীপ প্রজ্জ্বলন ও বেলুন উড়িয়ে সাংগ্রাই উৎসবের উদ্বোধন করেন ভারত প্রত্যাগত শরণার্থী বিষয়ক টাস্কফোর্সের চেয়ারম্যান কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি। বাংলাদেশ মারমা উন্নয়ন সংসদ এ উৎসবের আয়োজন করে।

এ সময় খাগড়াছড়ি রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আব্দুল মোতালের সাজ্জাদ মাহমুদ, পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী, খাগড়াছড়ির জেলা প্রশাসক মো. রাশেদুল ইসলাম, পুলিশ সুপার মো. আলী আহমেদ খান, জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মো: নুরুন্নবী চৌধুরী ও পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য মংশেপ্রু চৌধুরী অপু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Sanhai-2

বৈসাবি উৎসবকে ঘিরে পাহাড়ে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির মেলবন্ধন সৃষ্টি হয়েছে মন্তব্য করে টাস্কফোর্সের চেয়ারম্যান কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি বলেন, ‘বছর জুড়ে এ সম্প্রীতি ধরে রাখতে হবে। তবেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পাহাড়ে সূচিত উন্নয়নের ধারা অব্যাহত থাকবে।’

Sanhai-3

জলোৎসবের মাধ্যমে পুরনো বছরের সকল পাপ-তাপ মুছে ফেলারও আহবান জানান তিনি।

এর পরপরই মারমা সম্প্রদায়ের বর্ণিল পোশাকে হাজার হাজার নারী-পুরুষ ও তরুন-তরুনীর অংশগ্রহণে এক বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা পানখাইয়াপাড়া থেকে শুরু হয়ে খাগড়াছড়ির জেলা সদরের গুরুত্বপুর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে একইস্থানে এসে শেষ হয়।

Sanhai-4

পরে মারমা সংসদ প্রাঙণে অনুষ্ঠিত হয় মারমা সম্প্রদায়ের শিল্পীদের পরিবেশনায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও ঐতিহ্যবাহী ওয়াটার ফেস্টিবল বা জলকেলি উৎসব।

মুজিবুর রহমান ভুইয়া/এসআর/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :