ফতুল্লায় দুই গ্রুপের সংঘর্ষ-ভাঙচুর

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি নারায়ণগঞ্জ
প্রকাশিত: ০৯:২৫ পিএম, ২৭ মে ২০১৮

পূর্ব-শত্রুতার জেরে নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লার বক্তাবলীতে দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় ১০-১২টি দোকান ও দুটি বাড়ি ভাঙচুর করা হয়। সংঘর্ষে উভয় পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন।

রোববার দুপুরে বক্তাবলীর কানাইনগর বেকারি মোড় এলাকায় এ সংঘর্ষ ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। এ সময় এক পক্ষের লোকজন দেড়ঘণ্টা সড়ক অবরোধ করে যানচলাচল বন্ধ করে দেয়।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে কয়েকদিন আগে বক্তাবলীর কানাইনগর ছোবহানিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে নয়ন গ্রুপের সঙ্গে গোপালনগর এলাকার আলামিন গ্রুপের মধ্যে দ্বন্দ্ব সৃষ্টি হয়।

এরই জের ধরে শনিবার দুপুরে আলামিনসহ কয়েকজন কানাইনগর আসলে তাদেরকে আটক করে নয়নসহ তার গ্রুপের লোকজন মারধর করে। পরে কানাইনগর বেকারি মোড় এলাকায় পাল্টা হামলা চালায় আলামিনের লোকজন। এতে উভয় পক্ষের ১০ জন আহত হয়।

এ সময় গোপালনগর গ্রামের ২০-৩০ জন লোক দা, ছোরা, লাঠিসোটা নিয়ে কানাইনগর বেকারি মোড়ে এসে রাস্তার পাশের দোকানপাট ভাঙচুর করে। এছাড়া নয়নের বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করা হয়।

পরে কানাইনগরের লোকজন একত্রিত হয়ে গোপালনগরের লোকদের ধাওয়া করলে তারা পালিয়ে যায়। এ সময় কানাইনগরের লোকজন বক্তাবলী ইউনয়ন পরিষদ কার্যালয়ের সামনে গিয়ে হামলার চেষ্টা চালায়।

পরে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে পুলিশ। আহতদের মধ্যে রয়েছে জনি, রনি, নয়ন, আলামিন, তুহিনসহ ১০ জন। তাদের কয়েকজনের অবস্থা গুরুতর।

ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশের উপ-পরিদশর্শক এসআই শাফিউল আলম বলেন, বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। দুই পক্ষের কয়েকজন আহত হয়েছে। তাদের হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

শাহাদাত হোসেন/এএম/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :