চাল কম দেয়ায় কাউন্সিলরকে গণধোলাই

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি চুয়াডাঙ্গা
প্রকাশিত: ০৯:২১ পিএম, ১৬ আগস্ট ২০১৮

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনা পৌরসভার ৮ নং ওয়ার্ডের দুস্থদের মাঝে ভিজিএফের চাল বিতরণের সময় ওজনে কম দেয়ায় কাউন্সিলর চান্দু মাস্টারকে গণধোলাই দিয়েছে এলাকাবাসী।

বৃহস্পতিবার দুপুর ২টার দিকে দর্শনা পৌর চত্বরে এ ঘটনা ঘটে। পরে ওজনে চাল কম দেয়ার কথা স্বীকার করে দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে ক্ষমা চেয়ে ছাড়া পান কাউন্সিলর চান্দু মাস্টার।

এলাকাবাসী জানায়, বৃহস্পতিবার দুপুরে দর্শনা পৌরসভার ৮ নং ওয়ার্ডে ৩৩৫ জন কার্ডধারীর মাঝে ভিজিএফের চাল বিতরণ শুরু করেন কাউন্সিলর চান্দু মাস্টার ও তার দুই সহযোগী জাহাঙ্গীর আলম জান্টু ও জান্টুর ছেলে শিমুল মিয়া।

জনপ্রতি ২০ কেজি করে চাল দেয়ার কথা থাকলেও ২৭৯ জনকে ১০-১১ কেজি করে চাল দেয়া হয়। চাল কম দেয়ার বিষয়টি এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে দর্শনা পৌর চত্বরে এসে বিষয়টি হাতেনাতে ধরে ফেলে এলাকাবাসী।

সেইসঙ্গে এলাকাবাসী কাউন্সিলর চান্দু মাস্টারকে গণধোলাই দেয়। এ সময় তার সহযোগীরা পালিয়ে যায়। পরে কাউন্সিলর চান্দু মাস্টার ও তার দুই সহযোগীর শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল বের করে এলাকাবাসী।

দামুড়হুদা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা শাখার উপ-সহকারী প্রকৌশলী নুরুজ্জামান বলেন, দুস্থদের মাঝে জনপ্রতি ২০ কেজি করে চাল বিতরণের কথা থাকলেও ১০-১১ কেজি করে চাল বিতরণ করেন কাউন্সিলর চান্দু মাস্টার। চাল কম দেয়ার বিষয়টি স্বীকার করে দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে ক্ষমা চাওয়ায় চান্দু মাস্টারকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। সেইসঙ্গে চাল বিতরণ বন্ধ রেখে গুদামে সিলগালা করা হয়েছে। পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত চাল বিতরণ বন্ধ থাকবে এবং ওই কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

দুস্থদের চাল কম দেয়ার কথা স্বীকার করে দর্শনা পৌরসভার প্যানেল মেয়র-১ রবিউল হক সুমন বলেন, সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের কাউন্সিলর চান্দু মাস্টার অঙ্গীকার করেছেন যাদের চাল কম দিয়েছেন তাদের মাঝে পুনরায় সঠিক পরিমাপে চাল বিতরণ করবেন। অবশিষ্ট চাল সিলগালা করে দর্শনা পৌর গুদামে জমা রাখা হয়েছে।

সালাউদ্দিন কাজল/এএম/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :