নারী ওয়ার্ড ফ্লোরে, শিশুরা এক কোণে

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি রাঙ্গামাটি
প্রকাশিত: ০১:৫৭ পিএম, ১৮ আগস্ট ২০১৮

রাঙ্গামাটি সদর জেনারেল হাসপাতাল ভবনের মা ও শিশু ওয়ার্ডের আরসিসি পিলারে ফাটল দেখা দেয়ায় ২০১৭ সালের ২৫ জানুয়ারি ওয়ার্ড দুটি বন্ধ করে দেয়া হয়। এরপর থেকে ওই ওয়ার্ডের নারী রোগীদের হাসপাতালের পাশের একটি ভবনে ফ্লোরিং করে এবং শিশুদের পুরুষ ওয়ার্ডের একাংশে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

কর্তৃপক্ষ বিভিন্ন সময় ওয়ার্ডটি খুলে দেয়ার কথা বললেও এখনও সেটা বাস্তবায়ন হয়নি। এতে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে রোগীদেরকে।

জানা যায়, ৮০’র দশকের দিকে নির্মিত ৫০ শয্যার রাঙ্গামাটি জেনারেল হাসপাতাল ভবনটি দোতলা করে ১৯৮৩ সালে ১০০ শয্যায় উন্নীত করা হয়। পরে ১৯৯৭ সালের পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তি চুক্তি অনুসারে স্বাস্থ্য বিভাগ জেলা পরিষদকে হস্তান্তর করা হলে তারাই হাসপাতালটির দেখাশোনা করে আসছে।

নারী ও শিশু ওয়ার্ড বন্ধ হয়ে যাওয়ার পরে এ ভোগান্তি নিয়ে জেলা পরিষদের কাছে বিভিন্ন অভিযোগ আসতে থাকে। পরে চলতি বছরের ২৬ জুলাই রাঙামাটি জেলা পরিষদের বাজেট ঘোষণা অধিবেশনে পরিষদের চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা বলেন হাসপাতালের সংষ্কার কাজ শেষ করে এক সপ্তাহের মধ্যে ওই ওয়ার্ড খুলে দেয়া হবে। কিন্তু সে কথার পরও দিন গড়িয়েছে অনেক। এখনও নারী ও শিশু ওয়ার্ডটি খোলা হয়নি।

ভুক্তভোগী সাদিয়া ইসলাম বলেন, দুই দিন ধরে হাসপাতালে আমার মাকে নিয়ে আছি। মাকে হাসপাতালের পাশের একটি ভবনে ফ্লোরিং করে রাখা হয়েছে। এভাবে থাকতে অনেক কষ্ট হচ্ছে।

রোকসানা আক্তার বলেন, আমার দুই বছরের শিশুকে নিয়ে হাসপাতালে আজ বেশ কয়েকদিন ধরে আছি। শিশুদের জন্য আলাদা কোনো ওয়ার্ড নেই বলে খুবই অসুবিধা হচ্ছে।

রাঙ্গামাটির সিভিল সার্জন ডা. শহীদ তালুকদার জানান, আশা করছি কোরবানি ঈদের আগেই আগামী ২০ আগস্টের মধ্যে ওয়ার্ড দুইটি খুলে দিতে পারব।

এফএ/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :