সিলেটে বিএনপি সভাপতির বাসায় গোলাগুলি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক সিলেট
প্রকাশিত: ০৯:৫৬ পিএম, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮

সিলেট নগরের সোবহানীঘাট এলাকায় জেলা বিএনপির সভাপতি আবুল কাহের শামীমের বাসায় তল্লাশি চালিয়ে ৫ নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। এসময় ৪টি মোটরসাইকেল ও ৩টি পাসপোর্ট জব্দ করে পুলিশ। পাসপোর্ট গুলো হচ্ছে, চৌধুরী ফাহিম, শাকিল আহমদ ও শাকির আহমদ নামের। রোববার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে যতরপুরস্থ মৌবন ২৫ নম্বর বাসায় এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশের দাবি হামলায় তাদের তিন সদস্য আহত হয়েছেন এবং পুলিশ টহলে থাকা সিএনজিচালিত অটোরিকশা ভাঙচুর করা হয়। তবে বিএনপি বলছে কোনো কারণ ছাড়া পুলিশ নাটক সাজিয়ে বাসায় গুলি করে ৫/৬ জন মেহমানকে মোটরসাইকেলসহ আটক করে নিয়ে গেছে।

সিলেট মহানগর পুলিশের কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোশারফ হোসেন বলেন, রোববার সন্ধ্যার দিকে যতরপুর এলাকায় জেলা বিএনপির সভাপতি আবুল কাহের শামীমের বাসার সামনে ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা নাশকতার লক্ষে জড়ো হয়। এমন খবর পেয়ে পুলিশের একটি দল ওই বাসার সামনে গেল পুলিশ সরকারের গুণ্ডা বাহিনী, পুলিশ এখানে কেন, বলেই পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করা হয় ও হামলাকারীরা পুলিশের ব্যবহৃত সিএনজিচালিত অটোরিকশা (সিলেট থ ১২-৭১৬৬) ভাঙচুর করে।

sylhet-

এসময় পুলিশের এএসঅাই তরুণীসহ ৩ জন আহত হন। তাদেরকে সিলেট ওসমানী হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে ১২ রাউন্ড গুলি ছোঁড়ে। ঘটনাস্থল থেকে ৫/৬ জনকে আটক করা হয়েছে। তবে তিনি আটক নেতাকর্মীদের নাম-পরিচয় জানাতে পারেননি।

এ বিষয়ে সিলেট জেলা বিএনপির সভাপতি আবুল কাহের শামীম বলেন, বিএনপির রাজনীতি করি বলেই পুলিশ আমার বাসায় অহেতুক অভিযান চালিয়ে ফাকা গুঁলি ছোড়ে। এসময় পুলিশ আমার বাসায় দেখা করতে আসা কয়েকজনকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। পুলিশ নাটক সাজিয়ে সবকিছু করেই যাচ্ছে। আমার বাসার সামনে পুলিশের ওপর হামলার কোনো ঘটনা ঘটেনি। নেতাকর্মীদের হয়রানি করতেই পুলিশ এমন নাটক করেছে।

ছামির মাহমুদ/এমএএস/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :