যেভাবে মিলল দুই জঙ্গি আস্তানার সন্ধান

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নরসিংদী
প্রকাশিত: ০৮:২১ পিএম, ১৬ অক্টোবর ২০১৮

দীর্ঘ ২১ ঘণ্টা শ্বাসরুদ্ধকর পরিস্থিতি বিরাজের পর অবশেষে শেষ হলো ‘অপারেশন গর্ডিয়ান নট’। নরসিংদীর মাধবদী ও শেখেরচরে ঘিরে রাখা দুটি বাড়ির একটিতে চালানো ‘অপারেশন গর্ডিয়ান নট’ অভিযানে নারীসহ দুই জঙ্গি নিহত হন।

এ সময় সেখান থেকে একটি আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে। জঙ্গিরা সেখানে চারটি বোমার বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে। এসব বিষয় নিশ্চিত করেন পুলিশের কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ইউনিটের (সিটিটিসি) প্রধান মনিরুল ইসলাম।

ভগীরথপুরে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের দুইশ মিটারের মধ্যে পাঁচতলা ওই বাড়ির পাশাপাশি মাধবদীতে সাততলা একটি বাড়ি ঘিরে সোমবার রাত ৯টার দিকে শুরু হয় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর এই অভিযান।

মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ভগীরথপুরের জঙ্গি আস্তানায় শুরু হয় সোয়াটের চূড়ান্ত অভিযান ‘অপারেশন গর্ডিয়ান নট’। বেশ কিছু সময় গোলাগুলির পর বিকেল ৪টার পর দুইজনের মরদেহ পাওয়া যায়।

পুলিশের ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, আমাদের কাছে গোয়েন্দা তথ্য ছিল- দুর্গাপূজা এবং সামনের জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে জঙ্গিরা বড় ধরনের নাশকতার জন্য সংগঠিত হচ্ছে। তারা কোথায় হামলা চালাতে পারে তবে সে বিষয়ে সঠিক তথ্য ছিল না। গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে নজরদারি বাড়িয়ে এই দুই জঙ্গি আস্তানার সন্ধান পাওয়া যায়।

পুলিশের ঘিরে রাখা মাধবদী গদাইরচর গাংপাড় এলাকার বাড়িতে কখন অভিযান চালানো হবে জানতে চাইলে ডিআইজি চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, আমরা তাদের আত্মসমর্পণের আহ্বান জানিয়েছি। রাতভর চেষ্টা করব, যাতে তারা অত্মসমর্পণ করে। কারণ, আমরা কোনো হতাহতের ঘটনা দেখতে চাই না। যদি তারা অত্মসমর্পণ না করে, তাহলে আগামীকাল দিনের বেলায় সেখানে অভিযান চালানোর পরিকল্পনা রয়েছে আমাদের।

মাধবদী পৌরসভার ছোট গদাইরচরের সাততলা নিলুফা ভিলার মালিক হাজী মো. আফজাল হোসেন নামের এক ব্যক্তি। ভবনটির প্রথম থেকে তৃতীয় তলা পর্যন্ত রয়েছে মিফতাহুল জান্নাহ মহিলা মাদরাসা। ওই ভবনের পঞ্চম তলার একটি ফ্ল্যাটে জঙ্গিরা অবস্থান করছে।

আর মেহেরপাড়া ইউনিয়নের ভগীরথপুরে পাঁচতলা বাড়িটির মালিক বিল্লাল হোসেন নামের এক কাপড় ব্যবসায়ী। ওই ভবনে অভিযান শেষে পঞ্চম তলায় ফ্ল্যাট থেকে সন্দেহভাজন দুই জঙ্গির মরদেহ পাওয়া যায়। দুটি বাসা এ মাসের ৭ তারিখে ভাড়া নেয়া হয়েছে বলে বাড়ির মালিকদের পক্ষ থেকে পুলিশকে জানানো হয়।

ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, মূলত গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে জঙ্গি আস্তানার সন্ধান পেলেও এখানে কী পরিমাণ অস্ত্র-গোলাবারুদ মজুত আছে সে বিষয়ে নিশ্চিত নই আমরা। অভিযান শেষে এক বাড়িতে দুইজনের মরদেহ পাওয়া যায়। কিছুও অস্ত্রও পাওয়া যায়। ঘিরে রাখা অপর বাড়িতে কতজন জঙ্গি আছে তা নিশ্চিত না হলেও একাধিক জঙ্গি আছে এটা নিশ্চিত।

অপারেশনের নাম ‘গর্ডিয়ান নট’ দেয়ার কারণ হিসেবে আইজিপি বলেন, নট মানে হচ্ছে গেরু। এটা এমন জটিল গেরু যা খুলতে কষ্ট হয়। অপাশেনটা খুব জটিল। এখানে পুলিশের চেয়ে জঙ্গিরা সুবিধাজনক আবস্থায় আছে। সুতরাং আমাদের জন্য অপারেশনটা একটু কষ্টকর। তাই অপারেশন ‘গর্ডিয়ান নট’ নাম দেয়া হয়েছে।

এএম/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :