বিয়ের বাজার করে কাঁদতে কাঁদতে বাড়ি ফিরলেন তিনি

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ফেনী
প্রকাশিত: ০৯:১৪ পিএম, ১৪ নভেম্বর ২০১৮

ফেনীর সোনাগাজী উপজেলায় মেয়ের বিয়ের বাজার শেষে কাঁদতে কাঁদতে বাড়ি ফিরলেন এক বাবা। বুধবার দুপুরে স্বর্ণের চেইন ও বিভিন্ন জিনিসপত্র কিনে বাড়ি ফেরার পথে কৌশলে তিন যুবক তার সব কিছু নিয়ে যায়।

পরে খালি হাতে কাঁদতে কাঁদতে বাড়ি ফেরেন রিকশাচালক বাবা আবুল কালাম। বাড়ি গিয়ে ঘটনাটি খুলে বললে কান্নায় ভেঙে পড়েন কনে ও তার মা। প্রতিবেশীরা সান্ত্বনা দিয়েও তাদের কান্না থামাতে পারেননি।

কান্নাজড়িত কণ্ঠে রিকশাচালক আবুল কালাম বলেন, মেয়ে জাহেদা বেগমের বিয়ে ঠিক হলে মানুষের কাছে হাত পেতে ৪০ হাজার টাকা সংগ্রহ করেছি। বুধবার মেয়ের গায়ে হলুদের কথা ছিল। সকালে বিয়ের বাজার করতে গিয়ে ১০ হাজার টাকা দিয়ে একটি স্বর্ণের চেইন ও বিভিন্ন জিনিসপত্র কিনি।

দুপুরে বাড়ি ফেরার পথে উপজেলার হোনারবাপের দোকানের সামনে তিন যুবক কৌশলে স্বর্ণের চেইন, জিনিসপত্রসহ বাকি টাকা চুরি করে নিয়ে যায়। বাড়ি গিয়ে বিষয়টি জানালে সবাই আমাকে বকাঝকা করেন। সেইসঙ্গে পুরো পরিবার কান্নায় ভেঙে পড়েন।

স্থানীয়রা জানান, রিকশাচালক আবুল কালামের পরিবার অত্যন্ত দরিদ্র। মেয়ের বিয়ের জন্য এলাকার মানুষের কাছ থেকে হাত পেতে টাকাগুলো সংগ্রহ করেছেন কালাম। বুধবার মেয়ের গায়ে হলুদের কথা ছিল। কিন্তু তা আর হলো না। গত মাসে তার ছেলে নূর করিম আত্মহত্যা করেছে। পরিবারের অভাবের তাড়নায় ছেলেটি আত্মহত্যা করেছিল। কিন্তু মেয়ের বিয়ে ঠিক হয়ে শেষ পর্যন্ত হলো না।

সোনাগাজী মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, বিষয়টি শুনেছি, অত্যন্ত দুঃখজনক ঘটনা। তার টাকা ও জিনিসপত্র উদ্ধারের চেষ্টা করছে পুলিশ। মেয়েটির বিয়ে যেন ভেঙে না যায় সে ব্যবস্থা করা হবে।

এএম/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :