এগিয়ে এলো না কেউ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি পিরোজপুর
প্রকাশিত: ০৯:৪৯ পিএম, ১৮ নভেম্বর ২০১৮

পিরোজপুরে শত শত জনতার সামনে রেজাউল করিম রিপন (৪২) নামের স্থানীয় এক কলেজ পিয়নকে কুড়াল দিয়ে নৃশংসভাবে কুপিয়ে হত্যা করেছে কাঞ্চন বেপারী (৩৫) নামের এক যুবক।

রোববার বিকেল ৫টার দিকে ইন্দুরকানী উপজেলার চন্ডিপুর বাজারে এ ঘটনা ঘটে। নিহত রেজাউল করিম রিপন উপজেলার বালিপাড়া ইউনিয়নের চরবলেশ্বর গ্রামের মৃত আবদুস সত্তার হাওলাদারের ছেলে এবং চন্ডিপুর কে.সি টেকনিক্যাল কলেজের পিয়ন ছিলেন।

ঘটনার পর ঘাতক কাঞ্চন বেপারীকে আটক করেছে পুলিশ। এ ঘটনার পর পুলিশ ক্যাম্পের সামনে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে এলাকাবাসী।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, রেজাউল করিম রিপন রোববার বিকেল ৫টার দিকে নিজ বাড়ি থেকে মজিবুর রহমান নামের এক ভ্যানচালকের ভ্যানে চড়ে চন্ডিপুর বাজারে আসার পথে পিছু নেয় কাঞ্চন। কিছু বুঝে ওঠার আগেই চলন্ত অবস্থায় পেছন থেকে কুড়াল দিয়ে কোপাতে শুরু করে। এ সময় কয়েকটি কোপ লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। একপর্যায় তার মাথায় কুড়াল দিয়ে কোপ দিলে ঘটনাস্থলেই রিপন নিহত হয়।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, খোলপটুয়া গ্রামের আবুবক্কর বেপারীর ছেলে কাঞ্চনের সঙ্গে চরবলেশ্বর গ্রামের ছালেকের মেয়ের বিয়ে হয়। কিছুদিন যেতে না যেতেই দাম্পত্য কলহ সৃষ্টি হয়। একপর্যায়ে কয়েকমাস আগে স্ত্রীর সঙ্গে কাঞ্চনের ছাড়াছাড়ি হয়ে যায়। এ ঘটনায় রিপনকে দোষারোপ করে কাঞ্চন। রিপন সম্পর্কে কাঞ্চনের চাচা শ্বশুর হতেন। সে কারণে তাকে হত্যা করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ইন্দুরকানী থানা পুলিশের ওসি হাবিবুর রহমান বলেন, বিকেল ৫টার দিকে চন্ডিপুর বাজারে স্থানীয় একটি কলেজের পিয়নকে প্রকাশ্যে কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। ঘটনার পরপরই ওই যুবককে আটক করা হয়েছে। সবার সামনে ঘটনাটি ঘটলেও কেউ এগিয়ে আসেনি। নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে।

হাসান মামুন/এএম/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :