মাহফিলের তবারক খেয়ে অসুস্থ শতাধিক

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি চাঁদপুর
প্রকাশিত: ০৮:২৯ এএম, ১৩ জানুয়ারি ২০১৯

চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলার ৩নং সুবিদপুর পূর্ব ইউনিয়নের উভারামপুর পাটোয়ারী বাড়িতে বার্ষিক ওরস ও দোয়া মাহফিলের তবারক খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন শতাধিক মানুষ।

শুক্র ও শনিবার দু’দিনে কয়েকটি গ্রামের প্রায় ২শ লোক চাঁদপুর আড়াইশ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল, মতলব আইসিডিডিআরবি হাসপাতালসহ জেলার বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। চিকিৎসকরাও অসুস্থ রোগীদের সেবা দিতে হিমশিম খেয়েছেন।

এলাকাবাসী জানান, গত ১০ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার উভারামপুর পাটোয়ারী বাড়ির বার্ষিক ওরস ও দোয়া মাহফলি অনুষ্ঠিত হয়। পরদিন ১১ জানুয়ারি শুক্রবার সকালে ওরস মাহফিলে তবারক (তেহেরি) খান উপস্থিতরা। খাবার খাওয়ার ৪/৫ ঘণ্টা পর থেকে অনেকের বমি ও পাতলা পায়খানা শুরু হয়। অসুস্থরা হাসপাতাল ও পার্শ্ববর্তী এলাকায় চিকিৎসা নিচ্ছেন। জেলার মতলব দক্ষিণ উপজেলার আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্রে (মতলব কলেরা হাসপাতাল) প্রায় ২শ রোগী ভর্তি হয়েছেন।

স্থানীয় পল্লী চিকিৎসক আবু সাদেক কাশেম জাগো নিউজকে বলেন, দুই দিনে শত শত রোগীকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়েছি। অসুস্থরা বেশিরভাগ উভারামপুর, বাসারা, নুরপুর, ইসলামপুর, কাইতাড়া ও হাজীগঞ্জ উপজেলার শমশেপুর, প্রতাপপুর, সাদ্রা, রামচন্দ্রপুর গ্রামের বাসিন্দা।

মাহফিল কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব নুরুল ইসলাম পাটওয়ারী জাগো নিউজকে জানান, প্রতি বছরের মতো এবারও পীর সাহেবের মৃত্যুবার্ষিকীতে ওয়াজ মাহফিলের আয়োজন করেছি। তেহেরি রান্নায় ব্যবহৃত পানি ও উপকরণ পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য চাঁদপুর শহরে পাঠানো হয়েছে।

চাঁদপুরের ভারপ্রাপ্ত সিভিল সার্জন মো. সফিকুল ইসলাম জানান, অসুস্থ রোগীরা এখন আশঙ্কামুক্ত।

এদিকে কোনো মাহফিলে তবারক বিতরণের আগে অবশ্যই তা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার দাবি জানিয়েছেন ভুক্তভোগীরা।

ইকরাম চৌধুরী/এফএ/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :