এবার বাড়িতে ঢুকে ইউপিডিএফ কর্মীকে খুন

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি খাগড়াছড়ি
প্রকাশিত: ০৮:২৬ এএম, ২০ জানুয়ারি ২০১৯

খাগড়াছড়ির রামগড়ে জেএসএসের এক নেতা নিহতের সপ্তাহ না পেরুতেই আবারও রক্ত ঝরলো পাহাড়ে। এবার পিপলু বৈষ্ণব ত্রিপুরা (৪১) নামে এক ইউপিডিএফ কর্মীকে গুলি করে হত্যা করেছে স্বশস্ত্র সন্ত্রাসীরা।

শনিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে খাগড়াছড়ির গাছবান এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। নিহত পিপলু বৈষ্ণব ত্রিপুরা রামগড়ের বল্টুরাম এলাকার মৃত নিগমানন্দ বৈষ্ণব ত্রিপুরার ছেলে।

খাগড়াছড়ি সদর থানা পুলিশের ওসি সাহাদাত হোসেন টিটো ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন।

ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টের (ইউপিডিএফ) কেন্দ্রীয় সংগঠক মাইকেল চাকমা এ ঘটনার জন্য পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতিকে (জেএসএস-এমএন লারমা) দায়ী করে বলেন, রাত সাড়ে ৮টার দিকে সন্ত্রাসীরা পিপলু বৈষ্ণব ত্রিপুরার বাসায় গিয়ে তাকে গুলি করে হত্যা করে।

নিহত পিপুল বৈষ্ণব ত্রিপুরা বিগত এক বছরেরও বেশি সময় ধরে ইউপিডিএফের দলীয় কর্মকাণ্ড থেকে বিরত রয়েছেন। তিনি শারীরিক প্রতিবন্ধী বলেও জানান মাইকেল।

এদিকে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির (জেএসএস-এমএন লারমা) কেন্দ্রীয় সহ তথ্য ও প্রচার সম্পাদক প্রশান্ত চাকমা এই ঘটনার সঙ্গে নিজেদের জড়িত থাকার অভিযোগ অস্বাকীর করে বলেন, ‘কোনো কিছু হলেই ইউপিডিএফ আমাদের উপর দোষ চাপায়। রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে এখানে আমাদেরকে দায়ী করা হচ্ছে।’

প্রসঙ্গত গত সোমবার প্রতিপক্ষের গুলিতে মোহন কুমার ত্রিপুরা (৩৫) নামে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির (জেএসএস-এমনএন লারমা) এক নেতা নিহত হন। রামগড়ের জগন্নাথ পাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

মুজিবুর রহমান ভুইয়া/এফএ/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :