আলোচিত সেই এসিল্যান্ড এবার ইউএনও

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নারায়ণগঞ্জ
প্রকাশিত: ০৯:৪৭ পিএম, ২৮ মার্চ ২০১৯

নিয়োগের সাত সপ্তাহ পর অবশেষে নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হিসাবে দায়িত্ব নিয়েছেন নাহিদা বারিক। এসিল্যান্ড (ফতুল্লা সার্কেল) হিসাবে সুনাম অর্জন করায় ব্যাপক আলোচিত হন নাহিদা বারিক। জনগণের সেবাদানে ব্যাপক প্রশংসা অর্জন করেছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার নাহিদা বারিক আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্ব বুঝে নেন। প্রথমদিন অফিস করেন এবং একটি অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন ইউএনও নাহিদা বারিক।

গত ৪ ফেব্রুয়ারি অতিরিক্ত কমিশনার (সার্বিক) তারিকুল ইসলামের স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হিসেবে নাহিদা বারিকের নিয়োগের বিষয়টি জানানো হয়।

নাহিদা বারিকের নিয়োগ হওয়ার পর এই উপজেলার আরেক আলোচিত ইউএনও হোসনে আরা বীনাকে অন্তঃসত্ত্বার কারণ দেখিয়ে বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওএসডি) করা হয়।

এ নিয়ে ৮ ফেব্রুয়ারি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি আবেগঘন স্ট্যাটাস দেন ইউএনও হোসেনে আরা বীনা। সেই স্ট্যাটাসে সারাদেশে ব্যাপক আলোচনার সৃষ্টি হয়। ফলে নাহিদা বারিকের যোগদানের বিষয়টি আটকে যায়।

এদিকে, প্রশাসনিক কর্মকাণ্ডে মেধাবী ও দক্ষতা থাকায় সম্প্রতি ফতুল্লা সার্কেলের এসিল্যান্ড হিসেবে ব্যাপক সুনাম অর্জন করেন নাহিদা বারিক। এসিল্যান্ড অফিসে ডিজিটাল প্রদ্ধতি চালু করেন তিনি। গ্রাহকদের বসার সু-ব্যবস্থা করেন।

ফতুল্লার ভূমি অফিসগুলোসহ এসিল্যান্ড অফিসকে দালালমুক্ত করার পদক্ষেপ গ্রহণ করেন নাহিদা বারিক। সেবা নিতে আসা গ্রাহকরা সরাসরি এসিল্যান্ডের সঙ্গে কথা বলার সুযোগ পান। এমন কর্মকাণ্ডে ব্যাপক আলোচিত হন এবং সবার কাছে প্রিয় ব্যক্তি হিসেবে সুনাম অর্জন করেন নাহিদা।

দীর্ঘ এক বছর দুই মাস ফতুল্লার এসিল্যান্ড হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। ফতুল্লার কুতুবপুর, এনায়েতনগর ও ফতুল্লা ভূমি অফিসের মানচিত্র তৈরি করেছেন নাহিদা। দায়িত্বে থাকাকালীন ফতুল্লা ভূমি অফিসে সেবাগ্রহীতাদের হয়রানিমুক্ত সেবা নিশ্চিত করে ব্যাপক প্রশংসিত হন তিনি।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, ২০১৩ সালের ১১ মে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে সহকারী কমিশনার হিসেবে যোগদান করেন নাহিদা বারিক। পরবর্তীতে বন্দর উপজেলার এসিল্যান্ড হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন নয় মাস। ওই সময় তিনি বন্দরের লাঙ্গলবন্দ এলাকায় একই দিনে ৯৯টি অবৈধ স্থাপন উচ্ছেদ করেছেন। পরে যোগদান করেছেন ফতুল্লা রাজস্ব সার্কেলের এসিল্যান্ড হিসেবে।

মো. শাহাদাত হোসেন/এএম/পিআর