আ.লীগ নেতার ছেলের কান্না

উপজেলা প্রতিনিধি উপজেলা প্রতিনিধি ঈশ্বরদী (পাবনা)
প্রকাশিত: ০৮:১৬ পিএম, ২৪ এপ্রিল ২০১৯

পাবনায় নিহত মুক্তিযোদ্ধার সন্তান তানভীর রহমান তন্ময় বলেছেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, নুসরাত হত্যার রহস্য ও পরিকল্পনাকারীদের আপনি গ্রেফতারে সহযোগিতা করেছেন। বিচার পাওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন। কিন্তু আমার বাবাকে হত্যায় জড়িতদের কেন গ্রেফতার করা হচ্ছে না। আমরা কি বিচার পাব না? তিন মাসের বেশি সময় অতিবাহিত হওয়ার পরও মুক্তিযোদ্ধা হত্যার মূল পরিকল্পনাকারী কেন গ্রেফতার হয় না। বাংলাদেশের মাটিতে আর একটি মুহূর্তও নিঃশ্বাস নিতে ইচ্ছা করে না আমার।

পাবনার ঈশ্বরদীর আওয়ামী লীগ নেতা মুক্তিযোদ্ধা মোস্তাফিজুর রহমান সেলিমকে গুলি করে হত্যার পরিকল্পনাকারী ও খুনিদের গ্রেফতার দাবিতে ‘মুক্তিযোদ্ধা-গণঅনশন’ অনুষ্ঠানে কান্নাজড়িত কণ্ঠে এসব কথা বলেন তানভীর রহমান।

বুধবার সকাল ১০টা থেকে বেলা ১টা পর্যন্ত মুক্তিযোদ্ধা ঈশ্বরদী কমান্ডের আয়োজনে ঈশ্বরদীর পুরনো মোটরস্ট্যান্ডে মাহবুব আহমেদ খান স্মৃতিমঞ্চে মুক্তিযোদ্ধা, রাজনৈতিক নেতা ও এলাকাবাসী এ অনশন কর্মসূচি পালন করেন।

Tanvir-Rahman

ঈশ্বরদী উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোস্তফার সভাপতিত্বে ও ফজলুর রহমান ফান্টুর পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান নুরুজ্জামান বিশ্বাস, উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নায়েব আলী বিশ্বাস, ঈশ্বরদী পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ মিন্টু, সাধারণ সম্পাদক ইছহাক আলী মালিথা, পাকশী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হাবিবুল ইসলাম হবিবুল, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড পাকশী শাখার সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম, প্রেস ক্লাবের সভাপতি স্বপন কুমার কুন্ডু ও উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আতিয়া ফেরদৌস কাঁকলী প্রমুখ।

গত ৬ ফেব্রুয়ারি ঈশ্বরদী উপজেলার পাকশী ইউনিয়নের রূপপুরে নিজ বাড়ির সামনে দুর্বৃত্তদের গুলিতে নিহত হন পাকশী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা মোস্তাফিজুর রহমান সেলিম। এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

আলাউদ্দিন আহমেদ/এএম/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :