শরীয়তপুরের মডার্ন ফ্যান্টাসি কিংডমে দর্শনার্থীদের ভিড়

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি শরীয়তপুর
প্রকাশিত: ০৯:৪৫ এএম, ০৭ জুন ২০১৯

শরীয়তপুরের একমাত্র বিনোদন কেন্দ্র মডার্ন ফ্যান্টাসি কিংডমে এখন দর্শনার্থীদের উপচে পড়া ভিড়। ঈদের দিন বৃষ্টির হানায় দর্শনার্থী ছিল কম। তবে সেই তুলনায় ঈদের পরদিন সকাল থেকেই মানুষের চাপ বাড়ে। বাড়তি বিনোদনের আশায় সকাল থেকেই প্রিয়জনদের নিয়ে মডার্ন ফ্যান্টাসি কিংডমে আসেন বিনোদনপ্রেমীরা।

দূর-দূরান্ত থেকে আসা দর্শনার্থীরা বিশাল অজগর, কুমির, বানর, চিতাবাঘ, ময়ূর, সজারু, ভাল্লুক, কচ্ছপ, উটপখিসহ বিভিন্ন সেডের সামনে ভিড় জমান। তাদের কেউ কেউ অতি উৎসাহী হয়ে প্রাণীদের খাবারও দেন। মডার্ন ফ্যান্টাসি কিংডমের সবচেয়ে বড় আকর্ষণ হচ্ছে বিশালাকৃতির খাঁচায় সুন্দরবনের ২০টি হরিণ ও তাদের সঙ্গে থাকা হরিণ শাবক।

Sariotpur

বৃহস্পতিবার সরেজমিনে দেখা যায়, ৫০ টাকা দিয়ে টিকিট কেটে ভেতরে ঢুকছেন দর্শনার্থীরা। উপভোগের জন্য সকাল ৯টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত উন্মুক্ত থাকে বিনোদন কেন্দ্রটি।

ঘুরতে আসা দর্শনার্থী মিম, সুমা ও তপু বলেন, আগে শরীয়তপুরে কোনো বিনোদন কেন্দ্র ছিল না। ঘুরতে যেতে হলে ঢাকাসহ বিভিন্ন জেলায় যেতে হত। এখন শরীয়তপুরে মডার্ন ফ্যান্টাসি কিংডম বিনোদন কেন্দ্রটি হওয়ায় এখানে এসে বেশ ভালো লেগেছে।

Sariotpur

মডার্ন হারবাল গ্রুপের চেয়ারম্যান ও মডার্ন ফ্যান্টাসি কিংডমের প্রতিষ্ঠাতা ডা. আলমগীর মতি বলেন, শত ব্যস্ততার কারণে অনেকেরই হয়তো শরীয়তপুরের মডার্ন ফ্যান্টাসি কিংডম দেখা হয়নি। তারা ঘুরে যেতে পারেন এখানে। কারণ বিনোদন কেন্দ্রেগুলোতে এলে মন ভালো থাকে।

তিনি জানান, শরীয়তপুরের মানুষের কথা চিন্তা করে ২০১১ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে ১০০ একর জমির ওপর এটি নির্মাণ করা হয়।

ছগির হোসেন/এফএ/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :