প্রতিবন্ধীকে ফাঁসাতে গিয়ে ফেঁসে গেলেন ইয়াবা ব্যবসায়ী

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক সিলেট
প্রকাশিত: ০৩:০৭ পিএম, ০৯ আগস্ট ২০১৯

সিলেটে এক প্রতিবন্ধী মুদিদোকানিকে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসাতে গিয়ে ফেঁসে গেছেন সাবেক ইউপি সদস্য ও ইয়াবা ব্যবসায়ী চুনু মিয়া (৩৭)। এ ঘটনায় পুলিশ শুক্রবার চুনু মিয়াকে আটকসহ মাদক আইন ও নিরীহ মানুষকে ফাঁসানোর চেষ্টার অভিযোগে তার বিরুদ্ধে মামলা করেছে।

চুনু মিয়া সিলেট সদর উপজেলার কান্দিগাঁও ইউনিয়ন ৮ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক সদস্য (মেম্বার) এবং পূর্ব দর্শা গ্রামের আলকাছ মিয়ার ছেলে।

জানা গেছে, মহানগর পুলিশের জালালাবাদ থানার মাসুকগঞ্জ বাজারে সম্প্রতি কমিউনিটি পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে প্রতিবন্ধী ব্যবসায়ী সোহেল আহমদ মাদক ব্যবসায়ীদের নাম ধরে বক্তৃতা দেন এবং তাদের গ্রেফতারের দাবি জানান। এতে ক্ষিপ্ত হয় চুনু মিয়াসহ অন্য মাদকব্যবসায়ীরা। তারা বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ১০ পিস ইয়াবা ডারবি সিগারেটের প্যাকেটে ঢুকিয়ে সোহেলের দোকানে ফ্রিজের নিচে রেখে জালালাবাদ থানায় খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশসেখানে তল্লাশি করে ইয়াবা ভর্তি সিগারেটের প্যাকেটসহ সোহেলকে থানায় নিয়ে আসে।

ঘটনার পর স্থানীয় পঞ্চায়েত ও বাজার কমিটির নেতারা থানায় গিয়ে অফিসার ইনচার্জ (ওসি) অকিল উদ্দিনের সঙ্গে দেখা করে বলেন, সোহেল একজন সৎমানুষ। তারা বিষয়টি তদন্ত করে দেখার জন্য অনুরোধ জানান।

পরে ওসি অকিল উদ্দিন ঘটনাটি নিজে তদন্ত করেন এবং শুক্রবার ভোর ৪টায় কামাল বাজার এলাকায় মাদক ব্যবসায়ী আমিনের আস্তানায় অভিযান চালিয়ে ঘটনার মূলহোতা চুনু মিয়াকে আটক করেন। পরে পুলিশের ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদের চুনু মিয়া স্বীকার করেন তিনি নিজে ওই দোকানে ইয়াবা রেখে সোহেলকে ফাঁসাতে চেয়েছিলেন।

এরপর জালালাবাদ থানা হাজত থেকে নিরপরাধ প্রতিবন্ধী ব্যাবসায়ী সোহেলকে স্বজনদের জিম্মায় দিয়ে চুনুর বিরুদ্ধে মাদক আইনের মামলা করে পুলিশ।

এ ব্যাপারে ওসি অকিল উদ্দিন বলেন, নিরপরাধ প্রতিবন্ধী ব্যবসায়ীকে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টা করে মাদক ব্যবসায়ী চুনু। পরে পুলিশ বিষয়টি বুঝতে পেরে চুনু মিয়াকে আটক করে এবং সোহেলকে ছেড়ে দিয়েছে। বিকেলে চুনুকে মাদক মামলায় আটক দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হবে।

ছামির মাহমুদ/এমএমজেড/এমএস