প্রেমের টানে ঘর ছেড়ে মাদরাসাছাত্রী লাশ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি পঞ্চগড়
প্রকাশিত: ০৯:৩১ এএম, ২০ আগস্ট ২০১৯

ঢাকার কমলাপুর রেলস্টেশনে মাদরাসাছাত্রী আসমা খাতুনের (১৭) মরদেহ পাওয়ার খবরে পঞ্চগড়ে তার বাড়িতে শোকের মাতম চলছে। সোমবার সকালে কমলাপুর রেলস্টেশনে বলাকা কমিউটার ট্রেনের পরিত্যক্ত বগির ভেতরে গলায় ওড়না পেঁচানো অবস্থায় তার মরদেহটি পাওয়া যায়।

নিহত আসমা খাতুন পঞ্চগড় জেলা সদরের কনপাড়া গ্রামের ভ্যানচালক আব্দুর রাজ্জাকের দ্বিতীয় মেয়ে। সে স্থানীয় খানবাহাদুর মাদরাসা থেকে এবার দাখিল পাস করেছে।

আসমার পরিবারের সদস্যরা জানান, রোববার সকালে আসমার বাবা-মা বাড়ির বাইরে কাজে যাওয়ার পর সে একটি কাপড়ের ব্যাগ নিয়ে কাউকে কিছু না বলে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যায়। এরপর থেকে তাকে আর খুঁজে পাওয়া যায়নি। এরপর সোমবার সকালে পরিবারের সদস্যরা জানতে পারেন কমলাপুর রেলস্টেশনের বলাকা কমিউটার ট্রেনের একটি পরিত্যাক্ত বগি থেকে গলায় ওড়না পেঁচানো অবস্থায় তার মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তার ব্যাগে থাকা মোবাইল নম্বর থেকে পরিচয় শনাক্ত করে পুলিশ।

নিহত আসমা খাতুনের মা শেফালি বেগম বলেন, রোববার সকাল থেকে আসমার কোনো খোঁজ পাইনি। সোমবার সকালে জানতে পারি তার মরদেহ ঢাকার রেলস্টেশনে পাওয়া গেছে। আমি খোঁজ নিয়ে জেনেছি, পাশের হেলিপ্যাড এলাকার বাধন নামে এক ছেলের সঙ্গে তার সম্পর্ক ছিল। সম্ভবত তার সঙ্গেই সে চলে গেছে। এখন কীভাবে কী হয়েছে আমি জানি না।

নিহতের বড় চাচি জুলেখা বেগম বলেন, আমাদের পাশের হেলিপ্যাড এলাকার বাধন তাকে ফুঁসলিয়ে নিয়ে গেছে। তাকে নির্যাতন করে হত্যা করা হয়েছে। আমরা এর সঠিক বিচার চাই।

পঞ্চগড়ের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নাঈমুল হাছান বলেন, অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনাটি ঢাকার কমলাপুর রেলস্টেশনের বলে আমরা জানতে পেরেছি। নিয়ম অনুযায়ী সেখানকার রেলপুলিশ মামলা গ্রহণ এবং তদন্ত করবে। যেহেতু নিহতের বাড়ি পঞ্চগড়ে এজন্য তদন্তের সময় আমাদের সহায়তার প্রয়োজন হতে পারে।

সফিকুল আলম/আরএআর/এমকেএইচ