বাড়িতে ছাগল যাওয়ায় নারীকে গাছে বেঁধে নির্যাতন

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি যশোর
প্রকাশিত: ১০:০১ পিএম, ২০ নভেম্বর ২০১৯

যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলায় বাড়িতে ছাগল যাওয়াকে কেন্দ্র করে এক নারীকে গাছে বেঁধে নির্যাতন করা হয়েছে। গত ১২ নভেম্বরের এ ঘটনায় বুধবার (২০ নভেম্বর) রাতে ঝিকরগাছা থানায় অভিযোগ দেয়া হয়েছে। থানায় অভিযোগ দেয়ার পরই বিষয়টি জানাজানি হয়। নির্যাতনের শিকার রেহেনা পারভীন (৩৪) উপজেলার বায়সা গ্রামের বাসিন্দা।

অভিযোগ থেকে জানা যায়, ১২ নভেম্বর সকালে রেহেনা পারভীনের একটি ছাগল প্রতিবেশী রফিকুল ইসলামের বাড়িতে যায়। এ নিয়ে রফিকুলের স্ত্রী কমলা খাতুনের সঙ্গে রেহেনা ও তার বোন নূর জাহানের বিবাদ মারধরে রূপ নেয়।

একপর্যায়ে প্রতিবেশী তাইজুল ইসলাম, তার স্ত্রী শাহিনুর খাতুন, ছেলে জিয়াউর রহমান ও ছেলের স্ত্রী ফাইমা খাতুন, নূর বনী ওরফে নুরুন্নবীর স্ত্রী সুফিয়া খাতুন ও তার ছেলে শরিফুল ইসলাম, মফিজুর রহমানের স্ত্রী আমেনা খাতুন, শরিফুল ইসলামের স্ত্রী সেলিনা খাতুন, মফিজুর রহমানের ছেলে রেজাউল ইসলামসহ কয়েকজন রেহেনা পারভীনকে গাছের সঙ্গে বেঁধে বেধড়ক মরপিট করেন।

ওই ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য সাইফুল ইসলাম বলেন, ওই দিনই বিষয়টি জানতে পেরে ঘটনাস্থলে গিয়ে রেহেনা পারভীনকে উদ্ধার করে ঝিকরগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠাই। তবে বিষয়টি স্থানীয়ভাবে মীমাংসার চেষ্টা করা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে থানায় অভিযোগ দেয়ায় মীমাংসা করা সম্ভব হয়নি।

রেহেনা পারভীনের ছোট ভাই এমএম নবী বলেন, আমার বড় ভাই গোলাম মোস্তফার সঙ্গে জমাজমি ও টাকা পয়সা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে তারই ইন্ধনে বোনকে গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতন করেছে তারা। এ ঘটনায় ঝিকরগাছা থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে ঝিকরগাছা থানা পুলিশের ওসি মোশারফ হোসেন বলেন, বুধবার রাতে অভিযোগটি হাতে পেয়েছি। নির্যাতনকারীর মধ্যে রেহেনার বড় ভাই ও ভাবি রয়েছেন। বিষয়টি তদন্ত করে দেখব।

মিলন রহমান/এএম/এমএস