অবৈধভাবে বাংলাদেশে ঢুকে মাছ শিকার, ২৬ ভারতীয় জেলে গ্রেফতার

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি বাগেরহাট
প্রকাশিত: ০৮:৩৩ পিএম, ১৯ জানুয়ারি ২০২০

বাংলাদেশের জলসীমায় অনুপ্রবেশ করে বঙ্গোপসাগরে মাছ শিকার করায় আবারও ২৬ ভারতীয় জেলেকে গ্রেফতার করেছে নৌবাহিনী। রোববার (১৯ জানুয়ারি) বিকেলে আদালতের মাধ্যমে তাদের বাগেরহাট কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

এর আগে শনিবার (১৮ জানুয়ারি) বিকেলে মোংলা বন্দরের অদূরে বঙ্গোপসাগরের ফেয়ারওয়ে বয়া এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। ওই দিন সন্ধ্যায় তাদের বাগেরহাটের মোংলা থানায় হস্তান্তর করা হয়।

এ নিয়ে বঙ্গোপসাগরের বাংলাদেশ জলসীমায় অবৈধভাবে মাছ শিকারের সময় ছয় দফায় ১৪১ জন ভারতীয় জেলে গ্রেফতার হয়েছেন। বর্তমানে তারা সবাই বাগেরহাট কারাগারে রয়েছেন।

মোংলা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইকবাল বাহার চৌধুরী বলেন, শনিবার বিকেলে বঙ্গোপসাগরের ফেয়ারওয়ে বয়া এলাকায় নিয়মিত টহল দেয়ার সময় ভারতীয় এফবি শঙ্খ প্রদীপ ও এফবি মা মঙ্গল নামে দুটি ফিশিং ট্রলারকে বাংলাদেশ জলসীমায় মাছ ধরতে দেখতে পান নৌবাহিনীর সদস্যরা। এ সময় অবৈধভাবে বাংলাদেশ জলসীমায় অনুপ্রবেশ করে মাছ শিকারের অভিযোগে দুটি ফিশিং ট্রলারসহ মোট ২৬ জন ভারতীয় জেলেকে গ্রেফতার করা হয়। রোববার বিকেলে আদালতের মাধ্যমে তাদের বাগেরহাট কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

india2

মোংলা থানা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) মো. আহাদ বলেন, বাংলাদেশ জলসীমায় অনুপ্রবেশ করে মাছ শিকারের সময় আটক ২৬ ভারতীয় জেলের বিরুদ্ধে মামলা করেছে নৌবাহিনী। রোববার দুপুরে তাদের বাগেরহাট আদালতে পাঠানো হয়। বিকেলে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এ নিয়ে ছয় দফায় বাংলাদেশের জলসীমায় অবৈধ অনুপ্রবেশ করে মাছ শিকারের সময় ১৪১ ভারতীয় জেলে গ্রেফতার হয়েছেন। বর্তমানে তারা বাগেরহাট কারাগারে রয়েছেন।

বঙ্গোপসাগরের বাংলাদেশ জলসীমায় অবৈধভাবে ঢুকে মাছ শিকারের সময় গত ২ অক্টোবর প্রথম দফায় একটি ফিশিং ট্রলারসহ ১৫ ভারতীয় জেলে আটক হন।

এরপর ৪ অক্টোবর দুটি ফিশিং ট্রলারসহ ২৩ জন, ২২ অক্টোবর একটি ফিশিং ট্রলারসহ ১৪ জন, ৪ নভেম্বর চারটি ফিশিং ট্রলারসহ ৪৯ জন, ১০ ডিসেম্বর একটি ফিশিং ট্রলারসহ ১৪ জন। সর্বশেষ শনিবার (১৮ জানুয়ারি) দুটি ফিশিং ট্রলারসহ ২৬ জন ভারতীয় জেলে আটক হন।

শওকত আলী বাবু/এএম/এমএস