নোয়াখালীতে স্কুলছাত্র হত্যায় তিনজনের যাবজ্জীবন

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নোয়াখালী
প্রকাশিত: ০৭:৩৭ পিএম, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০

নোয়াখালীতে স্কুলছাত্র আবু সাকের শাহিন হত্যা মামলায় তিনজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। সেই সঙ্গে একজনকে মামলা থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। বুধবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে জেলা ও দায়রা জজ সালেহ উদ্দিন আহমদ এ রায় দেন।

সাজাপ্রাপ্তরা হলেন আব্দুল মোতালেব দুলাল, মহসিন আলী ফারুক ও আব্দুল কুদ্দুছ মাখন। তারা সেনবাগ উপজেলার পশ্চিম আহাম্মদপুর গ্রামের বাসিন্দা। রায় ঘোষণার সময় সাজাপ্রাপ্তদের মধ্যে আব্দুল কুদ্দুছ মাখন ও অব্যাহতিপ্রাপ্ত সেলিনা আক্তার মুক্তা আদালতে উপস্থিত ছিলেন। অপর সাজাপ্রাপ্তরা পলাতক।

রায়ে আব্দুল মোতালেব দুলাল, মহসিন আলী ফারুককে এক লাখ টাকা করে জরিমানা ও আব্দুল কুদ্দুছ মাখনকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

জেলা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) গুলজার আহমেদ জুয়েল বলেন, ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি রাতে স্থানীয় হাজী মোকছেদুর রহমান মুসলিম উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্র আবু সাকের শাহিনকে ডেকে নিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। ঘটনার পরদিন শাহিনের বাবা সেনবাগ উপজেলার পশ্চিম আহাম্মদপুর গ্রামের বাসিন্দা মোরশেদ আলম বাদী হয়ে সাতজনকে আসামি করে থানায় মামলা করেন।

তদন্ত শেষে মামলার এজাহারভুক্ত চার আসামিকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেয় পুলিশ। শুনানি শেষে বুধবার তিন আসামিকে যাবজ্জীবন ও একজনকে অব্যাহতি দেন আদালত। বাদীপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন আইনজীবী মোল্লা হাবিবুর রসুল মামুন, ইসমাইল ফয়েজ উল্যা রাসেল ও নিজাম উদ্দীন।

রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করে নিহত স্কুলছাত্র শাহিনের বাবা মোরশেদ আলম বলেন, আশা করেছিলাম অপরাধীদের মৃত্যুদণ্ড দেবেন আদালত। এখন আদালত যে আদেশ দিয়েছেন তাতে সন্তুষ্ট আমি। এ রায় যেন উচ্চ আদালতে বহাল থাকে।

মিজানুর রহমান/এএম/জেআইএম