মাছ বিক্রেতা বৃদ্ধার সততা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ব্রাহ্মণবাড়িয়া
প্রকাশিত: ০১:২৫ পিএম, ২৩ মে ২০২০

মানুষের বাড়ি বাড়ি মাছ বিক্রি করেই সংসার চালান বৃদ্ধা শামছুন্নেহা। বেশি টাকা আয় না হলেও সুখ ছিল মনে। কিন্তু করোনাভাইরাসের প্রভাব পড়েছে তার মাছের কারবারে। আগের মতো বেচাকেনা নেই। চরম অর্থ কষ্টে দিন কাটছে তার। তবুও নিজের সততাকে জলাঞ্জলি দেননি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া উপজেলার শান্তিনগর এলাকার এই বৃদ্ধা।

শুক্রবার (২২ মে) সকালে খাদ্য সহায়তা পেতে ঘর থেকে বের হয়ে রাস্তায় পাঁচ হাজার টাকা কুড়িয়ে পান শামছুন্নেহা। টাকাগুলো প্রকৃত মালিককে খুঁজে তার হাতে তুলে দেয়ার জন্য এক সেলুন মালিকের কাছে তুলে দেন তিনি।

শামছুন্নেহা জানান, শুক্রবার সকালে আখাউড়া পৌর শহরের রাধানগর এলাকার চৌরাস্তার মোড় দিয়ে হেঁটে যাওয়ার সময় তিনি রাস্তায় পড়ে থাকা টাকা তুলে নেন। টাকাগুলো সবার সামনে গুনে দেখেন পাঁচ হাজার টাকা। তাৎক্ষণিকভাবে পাশের সেলুন মালিক সুকোমল সাহার কাছে তিনি টাকাগুলো বুঝিয়ে দেন প্রকৃত মালিকের কাছে দেয়ার জন্য।

শনিবার (২৩ মে) সকালে সেলুন মালিক সুকোমল টাকাগুলো রাধানগর এলাকার বাসিন্দা ও সাংবাদিক বিশ্বজিৎ পাল বাবুর কাছে তুলে দেন।

সাংবাদিক বিশ্বজিৎ পাল বাবু বলেন, মাছ বিক্রেতা শামছুন্নেহার কুড়িয়ে পাওয়া পাঁচ হাজার টাকা সেলুন মালিক আমার কাছে জমা দিয়ে গেছেন। টাকার প্রকৃত মালিক প্রমাণ দিয়ে আমার কাছ থেকে নিয়ে যেতে পারবেন।

আজিজুল সঞ্চয়/আরএআর/পিআর