জনগণের কল্যাণে আমৃত্যু কাজ করে যাব : পলক

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নাটোর
প্রকাশিত: ০২:০৬ পিএম, ১৬ জুলাই ২০২০

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, আমরা বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের মধ্যে রয়েছে। এর মধ্যেই ঘূর্ণিঝড় এবং বন্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে। এমন পরিস্থিতি বারবার এসেছে, পিছপা হইনি। মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছি। এবারও চলনবিলের প্রাকৃতিক দুর্যোগে আমি আপনাদের সামনে এসেছি। দুঃখের দিনে দূরে থাকতে পারিনি। জনগণের কল্যাণে কাজ করছি। আমৃত্যু কাজ করে যাব ইনশাআল্লাহ।

বৃহস্পতিবার (১৬ জুলাই) সকাল ১০টার দিকে নাটোরের সিংড়া উপজেলার বন্যাদুর্গত এলাকা পরিদর্শন এবং বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণকালে তিনি এসব কথা বলেন। শেরকোল ইউনিয়ন ও চামারীর এক হাজার পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করা হয়।

polak01

জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, ৬৭৮ কোটি টাকা ব্যয়ে কৃষক ও কৃষি উন্নয়নে সরকার চলনবিল উন্নয়ন প্রকল্প গ্রহণ করেছে। এটি বাস্তবায়ন হলে চলনবিলে আমূল পরিবর্তন ঘটবে। শেরকোল ইউনিয়নে সরকারি কলেজ রয়েছে। ২৫৪ কোটি টাকা ব্যয়ে হাইটেক পার্ক করা হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, ইতোমধ্য বন্যাদুর্গতদের জন্য ভাগনাগকান্দী ও চকপুর আশ্রয়ণ কেন্দ্র খুলে দেয়া হয়েছে। বন্যায় পাঁচটি ইউনিয়ন এবং পৌর এলাকার কিছু মহল্লা প্লাবিত হয়েছে। প্রায় ১০ হাজার মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বন্যায় গৃহহীন ও ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা তৈরি করা হচ্ছে।

পরে প্রতিমন্ত্রী বন্যাদুর্গত এলাকা ঘুরে দেখেন এবং গুরনই নদীর শাহাবাজপুর এলাকা পরিদর্শন করেন।

polak-1

এ সময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাসরিন বানু, শেরকোল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান লুৎফুল হাবিব রুবেল, উপজেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা রুহুল আমিন, পানি উন্নয়ন বোর্ডের ঠিকাদার আব্দুল জব্বারসহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন দফতরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

রেজাউল করিম রেজা/আরএআর/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]