কলাপাড়ায় আয়রন ব্রিজ ভেঙে খালে, হাজারও মানুষের দুর্ভোগ

উপজেলা প্রতিনিধি উপজেলা প্রতিনিধি কলাপাড়া (পটুয়াখালী)
প্রকাশিত: ০৩:৪৪ এএম, ০৭ আগস্ট ২০২০

পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার নীলগঞ্জ ইউনিয়নের পাখিমারা বাজার সংলগ্ন আয়রন ব্রিজটি ভেঙে খালে পড়ে গেছে। বুধবার রাত ১০টার দিকে হঠাৎ বিকট শব্দে ব্রিজটি ভেঙে পড়ে। এতে শহীদ হাওলাদার ও ওহাব হাওলাদার নামে দুইজন পথচারী আহত হন।

ব্রিজটি ভেঙে যাওয়ায় নীলগঞ্জ ইউনিয়নের চার গ্রামের কয়েক হাজার মানুষ দুর্ভোগে পড়েছেন। অভিযোগ উঠেছে, নির্মাণত্রুটি ও ট্রলি দিয়ে পল্লীবিদ্যুতের খুঁটি পারাপার করায় ব্রিজের ভিতগুলো নড়বড়ে হয়ে ভেঙে পড়ে।

জানা যায়, ইউনিয়নের কুমিরমারা, মজিদপুর, ফরিদগঞ্জ ও এলেমপুর গ্রাম থেকে কলাপাড়া উপজেলায় ও স্থানীয় পাখিমারা বাজারে যাতায়াতের অন্যতম মাধ্যম এ আয়রন ব্রিজ। প্রতিদিন প্রায় এক থেকে দেড় হাজার লোক এ ব্রিজটি দিয়ে যাতায়াত করেন।

স্থানীয় বাসিন্দা ও আলোকিত নীলগঞ্জের মহাপরিচালক মো. নাঈমুর রহমান অভিযোগ করে বলেন, ব্রিজ উদ্বোধনের পর থেকে এখন পর্যন্ত প্রতিনিয়ত মোটরসাইকেল, অটোগাড়ি, মালবোঝাই টমটম চলাচল করে আসছে। ইদানীং ট্রলি দিয়ে পল্লীবিদ্যুতের খুঁটি পারাপার করায় ব্রিজের ভিতগুলো নড়বড়ে হয়ে যায়।

এ বিষয়ে নীলগঞ্জ ইউপি চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট নাসির মাহমুদ বলেন, চাকামইয়া ইউনিয়নের একটি পুরাতন ব্রিজের মালামাল দিয়ে এ ব্রিজটি নির্মাণ করায় শুরু থেকেই এর ভিত্তি দুর্বল ছিল। তার মধ্যে ভারী যানবাহন ও অতিরিক্ত চাপ পড়ায় হঠাৎ ব্রিজটি ভেঙে যায়। এ বিষয়ে আমি যথাযথ কর্তৃপক্ষকে অবহিত করেছি।

কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী প্রকৌশলী মোহর আলী বলেন, পুরাতন ব্রিজের মালামাল দিয়ে নির্মাণ ও লবণাক্ততার কারণে ব্রিজটি অল্পদিনেই ভেঙে পড়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। এ বিষয়ে অতিদ্রুত বিকল্প ব্যবস্থা করা হবে।

কলাপাড়া উপজেলা ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী কর্মকর্তা সহকারী কমিশনার (ভূমি) জগৎবন্ধু মন্ডল বলেন, ব্রিজ ভেঙে পড়ার বিষয়টি আমি শুনেছি। আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি অবহিত করব।

বিএ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]