পদ্মায় তীব্র স্রোত, দৌলতদিয়ায় যানবাহনের দীর্ঘ লাইন

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি রাজবাড়ী
প্রকাশিত: ১২:২২ পিএম, ০৮ আগস্ট ২০২০

পদ্মা নদীতে তীব্র স্রোতের কারণে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌ রুটে ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। ঈদ শেষে কর্মস্থলগামী মানুষের ভিড় ও শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী রুটের বাড়তি চাপে দৌলতদিয়ায় নদী পারের অপেক্ষায় কয়েক কিলোমিটার সড়কে যানবাহনের দীর্ঘ লাইন তৈরি হয়েছে।

শনিবার (৮ আগস্ট) বেলা ১১টার দিকে দৌলতদিয়া ফেরি ঘাটের জিরো পয়েন্ট থেকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের প্রায় তিন কিলোমিটার ও রাজবাড়ী-কুষ্টিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কের প্রায় চার কিলোমিটার সড়কে যাত্রীবাহী বাস, পণ্যবাহী ট্রাক, মাইক্রোবাস ও প্রাইভেটকার সিরিয়ালে থাকতে দেখা গেছে।

rajbari04.jpg

এ সময় সড়কে ঘণ্টার পর ঘণ্টা আটকে থেকে চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন চালক ও যাত্রীরা। সময় মতো মালামাল পরিবহন করতে না পেরে বিপাকে পড়েছেন পণ্যবাহী ট্রাক চালকরা।

ট্রাক চালকরা জানান, তারা অনেকে দুই থেকে তিনদিন সড়কে আটকে রয়েছেন। এতে তাদের খরচ বেড়ে যাচ্ছে। খোলা রাস্তায় তাদের থাকতে হচ্ছে। যেখানে খাবার, গোসল ও টয়লেট সুবিধা নেই। বাধ্য হয়ে অনেক চালক ও হেলপার রাস্তার ওপর রান্না করছেন। আবার অনেকে ভ্যানে আসা ভ্রাম্যমাণ খাবার কিনে খাচ্ছেন। যাত্রীবাহী পরিবহনের পাশাপাশি প্রতিটি ফেরিতে কয়েকটি করে পণ্যবাহী ট্রাক পারাপারের সুযোগ দিলে সিরিয়াল কমে আসতো।

rajbari04.jpg

বিআইডব্লিটিসি’র দৌলতদিয়া ঘাটের ব্যবস্থাপক আবু আব্দুল্লাহ রনি জানান, নদীতে তীব্র স্রোত এবং শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌ রুটের বাড়তি চাপে দৌলতদিয়া ঘাট এলাকায় যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। বর্তমানে এই রুটে ১৭টি ফেরি চলাচল করছে। ছোট গাড়ি ও যাত্রীবাহী বাস অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পারাপার করা হচ্ছে। যাত্রীবাহী পরিবহনের চাপ কমলে পণ্যবাহী ট্রাক পারাপার করা হবে।

রুবেলুর রহমান/আরএআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]