শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌপথ এড়িয়ে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া ব্যবহারের আহ্বান

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি মুন্সিগঞ্জ
প্রকাশিত: ০৮:০৩ পিএম, ০২ সেপ্টেম্বর ২০২০
লৌহজং টার্নিং পয়েন্ট ও চ্যানেল খননকাজের অগ্রগতি দেখছেন বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান কমডোর গোলাম সাদেক

নাব্যতা সঙ্কটের কারণে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌপথে ফেরি চলাচল ব্যাহত হওয়ায় যাত্রীদের পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌপথ ব্যবহারের আহ্বান জানিয়েছেন বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান কমডোর গোলাম সাদেক। বুধবার (০২ সেপ্টেম্বর) দুপুরে পদ্মার লৌহজং টার্নিং পয়েন্ট ও চ্যানেল খননকাজের অগ্রগতি দেখতে এসে এ আহ্বান জানান তিনি।

গোলাম সাদেক বলেন, শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌপথে যে কয়টি ছোট ও কে-টাইপ ফেরি চলাচল করে তা সচল রাখা হয়েছে। শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌপথে চাপ দেখা দিলে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া হয়ে চলাচল করেন যাত্রীরা। কাজেই এখন থেকে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌপথ ব্যবহার করুন। দুর্ভোগ কমাতে এই নৌপথে মাঝারি ও ছোট আরও ফেরি বাড়ানো দরকার। ফেরির চ্যানেলে পলি আসা বন্ধ করা যাবে না। তবে সার্বক্ষণিক ড্রেজিং করে চ্যানেল সচল রাখার কাজ চলছে।

তিনি বলেন, লৌহজং টার্নিং, চাইনিজ চ্যানেলসহ মোট তিন চ্যানেলের একটি পলি পড়ে বন্ধ হলেও অপরটি ড্রেজিং করে ফেরি চলছে। এক চ্যানেল থেকে অন্য চ্যানেলে ড্রেজার স্থানান্তর করা সহজ নয়। আপাতত কিছুদিন এভাবে চললে আগামী কিছুদিনের মধ্যে সুন্দর ব্যবস্থা করে দেয়া হবে।

এর আগে নাব্যতা সঙ্কট ও পদ্মার পানি কমে যাওয়ায় চ্যানেল সরু হওয়ায় গত শনিবার থেকে রাতের বেলায় শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌপথে ফেরি চলাচল বন্ধ রাখছে ঘাট কর্তৃপক্ষ। একই কারণে দিনের বেলায়ও ব্যাহত হচ্ছে ফেরি চলাচল। এতে প্রতিদিনই ভোগান্তিতে পড়ছেন যাত্রীরা।

এএম/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]