ঝগড়া করায় ঘরে আগুন দিল ছেলে, পুড়ে মারা গেলেন মা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নোয়াখালী
প্রকাশিত: ০৯:৩৯ পিএম, ১৯ অক্টোবর ২০২০
নোয়াখালীতে পারিবারিক কলহের জের ধরে ছেলের দেয়া আগুনে পুড়ে মারা গেলেন মা

পারিবারিক কলহের জের ধরে ছেলের দেয়া আগুনে পুড়ে মারা গেলেন সৎমা। একই ঘটনায় আরও চারজন অগ্নিদগ্ধ হয়েছেন। সোমবার (১৯ অক্টোবর) সকালে নোয়াখালী সদর উপজেলার রামহরিতালুক গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আগুনে পুড়ে মারা যাওয়া সৎমা আসমা বেগম (৩২) রামহরিতালুক গ্রামের ইসমাইল হোসেনের স্ত্রী। অপর অগ্নিদগ্ধরা হলেন- কামাল উদ্দিন, প্রতিবেশী তারেক, সুমন ও মান্না। পারিবারিক কলহের জেরে পেট্রোল ঢেলে ঘরে আগুন লাগিয়ে দেন ছেলে কামাল উদ্দিন।

সুধারাম থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) টমাস বড়ুয়া বলেন, উপজেলার রামহরিতালুক গ্রামের ইসমাইল হোসেনের প্রথম স্ত্রীর মৃত্যুর পর আসমা বেগমকে বিয়ে করেন। দ্বিতীয় স্ত্রীর সঙ্গে ইসমাইলের প্রথম স্ত্রীর ছেলে-মেয়ের বনিবনা না হওয়ায় কিছুদিন আগে বাড়ি ছেড়ে চলে যায় সন্তানরা।

সোমবার ইসমাইলের বড় ছেলে কামাল উদ্দিন বাড়িতে এলে সৎমায়ের সঙ্গে প্রথমে ঝগড়া ও পরে কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে ঘরের একটি কক্ষে পেট্রোল ঢেলে অগ্নিসংযোগ করেন কামাল।

এতে কামালসহ কক্ষে থাকা তার সৎমা ও প্রতিবেশীরা দগ্ধ হন। পরে তাদের উদ্ধার করে প্রথমে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য আসমা, কামাল ও তারেককে ঢাকায় পাঠানো হয়।

বিকেলে ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আসমার মৃত্যু হয়। কামাল ও তারেক চিকিৎসাধীন রয়েছেন। দগ্ধ অপর দুইজন নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

পরিদর্শক টমাস বড়ুয়া আরও বলেন, অগ্নিসংযোগকারী কামালের শ্যালককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মিজানুর রহমান/এএম/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]