গ্রাম রক্ষার দাবিতে পানি উন্নয়ন বোর্ডের অফিস ঘেরাও

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি গাইবান্ধা
প্রকাশিত: ০৩:৪১ পিএম, ২১ অক্টোবর ২০২০

বাঙালি নদীর করাল গ্রাস থেকে গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার রামনগর গ্রাম রক্ষার দাবিতে পানি উন্নয়ন বোর্ডের অফিস ঘেরাও করে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করেছেন স্থানীয়রা। সাঘাটার রামনগর নদী ভাঙন রক্ষা কমিটির আয়োজনে বুধবার (২১ অক্টোবর) দুপুরে ঘণ্টাব্যাপী এ কর্মসূচি পালিত হয়।

পরে গাইবান্ধা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মোখলেছুর রহমান ভাঙন প্রতিরোধে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিলে মানববন্ধন ও ঘেরাও কর্মসূচি প্রত্যাহার করে নেয়া হয়।

এ সময় রামনগর নদী ভাঙন রক্ষা কমিটির সভাপতি গোলাম মওয়া, সাঘাটার কচুয়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মাহাবুবর রহমান, সুশাসনের জন্য নাগরিকের (সুজন) সাঘাটা উপজেলার শাখার সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক শাহ আলম, ডা. লিয়াকত আলী, ইউপি সদস্য হাবিবর রহমান, সিপিবি নেতা জজ্ঞেশ্বর বর্মণ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

jagonews24

কচুয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান বলেন, কচুয়া ইউনিয়নে নদী ভাঙন প্রতিরোধে কোনো ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে না। প্রতি বছর শত শত পরিবার নদী ভাঙনের শিকার হচ্ছে। এ বছর বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের ১০০ মিটার ভেঙে যাওয়ায় পানি প্রবেশ করে উঁচু কয়েকটি ইউনিয়নের ৩০টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। নদী ভাঙন প্রতিরোধে ব্যবস্থা না নেয়া হলে আমরা আরও কঠোর আন্দোলনের ডাক দিব।

রামনগর নদী ভাঙন রক্ষা কমিটির সভাপতি গোলাম মওয়া বলেন, নদী ভাঙন প্রতিরোধে ব্যবস্থা নিতে কয়েক বছর ধরে আমরা মিছিল-মিটিং ও মানববন্ধন করে আসছি। তবুও ভাঙন প্রতিরোধে কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। চলতি বছর গাইবান্ধার পলাশবাড়ী ও গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া কাটাখালী ও বাঙালি নদীর পূর্বতীরের সাঘাটা উপজেলার সীমানা এলাকার রামনগর গ্রামের শতাধিক পরিবার নদী ভাঙনের শিকার হয়েছেন।

জাহিদ খন্দকার/আরএআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]