দুর্যোগ-দুর্দিনে উপকূলবাসীর পাশে তারা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি সাতক্ষীরা
প্রকাশিত: ০৮:৫৮ পিএম, ২৬ অক্টোবর ২০২০

উপকূলীয় সাতক্ষীরায় দেশের সর্ববৃহৎ উপজেলা শ্যামনগর অবস্থিত। বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট যে কোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগ প্রথমেই আঘাত হানে এ উপজেলায়। প্রাকৃতিক দুর্যোগের আঘাতে অসহায় এ উপজেলার দুর্গত মানুষদের পাশে দাঁড়িয়ে কাজ করছে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সিডিও ইয়ুথ টিম। উপকূলজুড়ে মানুষের জন্য কাজ করেন এ টিমের ৬০০ সদস্য। অসহায় মানুষদের জন্য তারা কখনও খাবার নিয়ে ছুটছেন, আবার কখনও উপকূল রক্ষা বাঁধ সংস্কারে ভূমিকা রাখছেন। করোনা মহামারিতেও উপকূলবাসীর জন্য ভূমিকা রেখে চলেছে এই যুব সংগঠনটি।

২০১১ সালে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের মানুষের আর্থ সামাজিক উন্নয়ন ও শিক্ষাক্ষেত্রে ভূমিকা রাখা ও দুর্যোগপ্রবণ এলাকার মানুষের পাশে দাঁড়াতে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন উপকূলীয় শিক্ষা ও বৈচিত্র্য উন্নয়ন সংস্থার (সিডিও) যাত্রা শুরু হয়। এরপর থেকেই সামাজিক ও মানবিক নানামুখী কাজে অংশ গ্রহণ করতে থাকেন সংস্থাটির সদস্যরা। ২০১৭ সালে এর শাখা সংগঠন হিসেবে গঠন করা হয় আরেকটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সিডিও ইয়ুথ টিম।

উপজেলার ১২টি ইউনিয়ন ও তিনটি কলেজের ১৫টি ইউনিটে সিডিও ইয়ুথ টিমের সদস্য সংখ্যা এখন ৬০০ জন। যারা মানবিক হয়ে স্বেচ্ছায় ঝাঁপিয়ে পড়েন দুর্যোগ-দুর্দিনে। কার্যক্রমের স্বীকৃতিস্বরুপ সিডিও ইয়ুথ টিমকে ২০১৯ সালের ১ নভেম্বর শ্যামনগর উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা যুব উন্নয়ন অধিদফতর যৌথভাবে ‘উপজেলার শ্রেষ্ঠ যুব সংগঠন’ হিসেবে সম্মাননা দেয়।

jagonews24

শ্যামনগর উপজেলার স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সিডিও ইয়ুথ টিম পরিচালনা করছেন এর প্রতিষ্ঠাতা গাজী আল ইমরান। সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন ওসমান গণি সোহাগ।

সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক গাজী আল ইমরান বলেন, আমাদের উপকূলের মানুষ সবসময় সুবিধাবঞ্চিত। প্রাকৃতিক দুর্যোগে নানাভাবে ক্ষতিগ্রস্ত উপকূল। শিক্ষা থেকেও বঞ্চিত। জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে সব থেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত এ উপকূলের বাসিন্দারা। মূলত প্রাকৃতিক দুর্যোগে মানুষকে সহায়তা করা, উপকূলীয় বৈচিত্র রক্ষা, শিক্ষায় অবদান রাখাসহ হতদরিদ্র মানুষের জন্য মানবিক হয়ে পাশে দাঁড়াতে সংগঠটি করেছি।

তিনি বলেন, মানবিক বিভিন্ন কাজগুলো আমরা এখন নিজস্ব অর্থায়নে করে থাকি। যদি কোনো পৃষ্ঠপোষক থাকতো তবে সংগঠনটি আরও এগিয়ে যেত। জনসচেতনতামূলক বিভিন্ন সময়ের গ্রোগ্রামগুলো করার সময় স্থানীয় বেসরকারি এনজিও সংস্থা বারসিক মাঝেমধ্যে ব্যানার তৈরি, মাইক ভাড়া করে দিয়ে সহায়তা করে। তাছাড়া আমাদের নিজস্ব কোনো ফান্ড নেই।

jagonews24

উপকূলবাসীর জন্য সিডিও ইয়ুথ টিম পরিচালিত কার্যক্রমগুলোর মধ্যে রয়েছে- মুমূর্ষ রোগীদের জন্য রক্ত জোগাড় করে দেয়া, করোনাকালে বিদেশ ফেরতদেরও হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিতকরণ ও হাতে সিল মারা, নিজস্ব অর্থায়নে এক হাজার মানুষকে খাবার দেয়া, প্রাকৃতিক দুর্যোগ আম্ফান ও বুলবুলের সময় উপকূলীয় ক্ষতিগ্রস্ত বেঁড়িবাধ রক্ষায় স্বেচ্ছাশ্রমে কাজে অংশগ্রহণ, বেড়িবাঁধ রক্ষার কাজে অংশ নেয়া হাজার হাজার মানুষকে খাওয়ানোর কাজে সহায়তা, উপজেলার আটুটিয়া, পদ্মপকুর, বুড়িগোয়ালিনী, গাবুরা ও কাশিমাড়ি ইউনিয়নের পাঁচটি স্থানে মানবতার পাঠশালা পরিচালনা, শ্যামনগর সদর ও ভেটখালী বাজারে মানবতার ঝুঁড়ি স্থাপন, সোয়ালিয়া টু গোপালপুর সড়কে এক কিলোমিটার বনায়ন করা, এছাড়াও প্রশাসনের বিভিন্ন কাজে তাদের ডাকে সাড়া দিয়ে স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে সহায়তা।

সিডিও ইয়ুথ টিমের সভাপতি ওসমান গণি সোহাগ বলেন, এসব কার্যক্রম ছাড়াও জেলা প্রশাসনের আহ্বানে উপজেলাজুড়ে ১২ হাজার তালবীজ বপনের কাজ করছেন সিডিও ইয়ুথ টিমের সদস্যরা। উপজেলায় এখন সিডিও ইয়ুথ টিমের ৬০০ জন সদস্য রয়েছেন। যারা যে কোনো ভালোকাজের সঙ্গে থেকে সহযোগিতা করেন। কারো কাছ থেকে কোনো টাকা নিয়ে নয়, স্বেচ্ছাশ্রমের মাধ্যমেই উপকূলীয় বাসিন্দাদের পাশে রয়েছি সব সময়।

তিনি বলেন, সরকারের সংশ্লিষ্ট অধিদফতরের নিবন্ধন নিয়ে আমরা শ্যামনগর উপজেলাব্যাপী কাজ করে যাচ্ছি। সিডিও যুব উদ্যোক্তা উন্নয়ন কেন্দ্র, নারী উদ্যোক্তা কেন্দ্র করে যুবক ও নারীদের সাবলম্বী করার কাজ করছি। এটি অরাজনৈতিক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। কোনো দাতা সংস্থা না, আমরা নিজেরাই যে যা পারি তাই নিয়ে সাধারণ মানুষের সেবায় নিয়োজিত রয়েছি। আমরা একটি স্বেচ্ছাসেবীবান্ধব বাংলাদেশ উপহার দিতে চাই।

jagonews24

শ্যামনগর যুব উন্নয়ন অধিদফতরের কর্মকর্তা আজিজুল হক বলেন, মূলত ইয়ুথ টিমের নেতৃস্থানীয়রা ইয়ং ছেলে-মেয়েদের ঐক্যবদ্ধ করে। তারপর তাদের বিভিন্ন ট্রেনিংয়ের মাধ্যমে সরকারের বিভিন্ন দফতরে যোগাযোগ করে তাদের স্বাবলম্বী করার জন্য কাজ করছে। এছাড়া যেকোনো আপদকালীন সময়ে প্রশাসনকে সহযোগিতা করে যাচ্ছে।

শ্যামনগর উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা শহিদুর রহমান জানান, সিডিও নামে শ্যামনগর উপজেলায় তারা রেজিস্ট্রেশন নিয়ে সিডিও ইয়ুথ টিম গঠন করে। জনসচেতনামূলক বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনাসহ দুর্যোগের সময় মানুষদের পাশে দাঁড়ানো ও ত্রাণ দেয়ার কাজ করছে তারা। আমাদের দৃষ্টিতে তারা ভালো কাজ করছে।

শ্যামনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আ.ন.ম আবুজর গিফারী বলেন, সিডিও ইয়ুথ টিমের সদস্যরা করোনাকালে ভূমিকা রেখেছে, আম্ফানের সময় মানুষদের পাশে দাঁড়িয়েছে, গরিব-দুঃখী মানুষ যেন বিনামূল্যে খেতে পারে সেজন্য মানবতার ঝুঁড়ি স্থাপন করেছে। ব্লাড ডোনেশনের একটি গ্রুপও রয়েছে এই যুব সংগঠনটির। প্রশাসনকে বিভিন্ন কাজে স্বেচ্ছাসেবী হয়ে সহযোগিতা করছে এই সংগঠনের সদস্যরা।

আকরামুল ইসলাম/আরএআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]