ভাইয়ের বাসায় বেড়াতে গিয়ে আত্মহত্যা করলেন ঢাবি ছাত্রী

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি পাবনা
প্রকাশিত: ০২:১৪ পিএম, ২৭ অক্টোবর ২০২০

পাবনায় আত্মহত্যা করেছেন রুম্পা (২২) নামে এক বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী। সোমবার (২৬ অক্টোবর) সন্ধ্যায় পাবনার আটঘরিয়া উপজেলার দোবোত্তরে ভাইয়ের বাসায় তিনি আত্মহত্যা করেন।

রুম্পা ঈশ্বরদী উপজেলার সাহাপুর ইউনিয়নের বাবুলচরা গ্রামের ফরিদ উদ্দীন মণ্ডলের মেয়ে। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের চতুর্থ বর্ষের ছাত্রী ছিলেন।

রুম্পা কয়েকদিন আগে তার ভাই ওয়াসিমুল ইসলামের বাসায় বেড়াতে যান। ওয়াসিমুল ইসলাম একটি রাষ্ট্রায়ত্ব ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার। তিনি আটঘরিয়া উপজেলার দোবোত্তরে ভাড়া বাসায় থাকেন।

রুম্পার স্বজনরা জানান, রুম্পা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শামসুন্নাহার হলে থাকতেন। তার বাবা একজন চাকরিজীবী।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন জানান, তার পছন্দের ছেলে বাদ দিয়ে অন্য এক ছেলের সঙ্গে বিয়ে দেয়ার চেষ্টা করায় তিনি অভিমান করে আত্মহত্যা করেছেন।

ঢাবির ইংরেজি বিভাগের চেয়ারপার্সন অধ্যাপক ড. নেভিন ফরিদা বলেন, আত্মহত্যার বিষয়টি তারা শুনেছেন। ঘটনাটি তাদের জন্য পীড়াদায়ক বলে মন্তব্য করেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. একেএম গোলাম রব্বানী বলেন, এটি খুবই দুঃখজনক ঘটনা।

আটঘরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসিফ মোহাম্মদ সিদ্দিক জানান, পুলিশ খবর পেয়ে সোমবার রাতে ওই শিক্ষার্থীর মৃতদেহ থানায় নিয়ে আসে। ময়নাতদন্তের জন্য মৃতদেহ পাবনা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

তার আত্মহত্যার কারণ জানা যায়নি। রুম্পার বাবা-মাও কোনো কিছু বলেননি বলে জানান ওসি আসিফ।

এফএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]