তুচ্ছ ঘটনায় দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষ, আহত ২০

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি পিরোজপুর
প্রকাশিত: ০৭:৩৫ পিএম, ০১ মার্চ ২০২১
প্রতীকী ছবি

পিরোজপুরে ধান ভাঙানোকে কেন্দ্র করে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষে অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন। সোমবার (১ মার্চ) সদর উপজেলার দূর্গাপুর ও টোনা ইউনিয়নের দুই গ্রামের বাসিন্দাদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

টানা দুই ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এসময় তিনজনকে আটক করে পুলিশ।

আহতরা হলেন, চুঙ্গাপাশা গ্রামের আমিনুল ইসলাম (৩৬), একই গ্রামের জাহিদুল ইসলাম (৩০), চল্লিশা গ্রামের শাহজাহান শেখ (৫৫), ইউনুস মোল্লা (৪৫), টোনা গ্রামের মনির শেখ (৩৫), তৌহিদুল ইসলাম (৩২), জাকির শেখ (২২) ও দূর্গাপুর গ্রামের মো. ইব্রাহিম (১৭) পিরোজপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন। বাকিরা স্থানীয় পল্লী চিকিৎসকের কাছে প্রাথমিক চিকিৎসা নেন।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, টোনা ইউনিয়ন থেকে খালের অন্যপ্রান্তে চুঙ্গাপাশা বাজার রাইচ মিলে ধান ভাঙানোর জন্য নিয়ে যান রাকিব নামে এক যুবক। এ সময় রাইচ মিলের লোকজন তার কাছ থেকে অতিরিক্ত চাল নিয়েছে বলে বাগবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন। এক পর্যায়ে তিনি রাইস মিলের মালিক আমিনুল ইসলামের মাথা ফাটিয়ে দেন। বিষয়টি ছড়িয়ে পড়লে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের শুরু হয়। এতে দুই পক্ষের সহস্রাধিক মানুষ অংশ নেয়। পরবর্তীতে দুই ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

পিরোজপুর জেলা পরিষদের সদস্য নাসির উদ্দিন বলেন, ‘চুঙ্গাপাশা বাজারের আমিনুল ইসলামের রাইচ মিলে রাকিব কাজী নামের এক যুবক ধান ভাঙাতে যান। এসময় রাইচ মিলের কর্মচারীরা চাল রেখে দেয়ার অভিযোগে রাকিবের সঙ্গে কর্মচারীদের বাগবিতণ্ডা হয়। এসময় ওই ব্যক্তি রাইচ মিলের মালিকের মাথা ফাটিয়ে দেন।’

পিরোজপুর সদর ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরুল ইসলাম বাদল তিনজন আটকের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘এ ঘটনায় এখনো কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি।’

আরএইচ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]