আপত্তিকর অবস্থায় ধরা, পরে প্রেমিকের বিরুদ্ধেই নারী নির্যাতন মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক বগুড়া
প্রকাশিত: ০৫:৩৩ পিএম, ০৯ মার্চ ২০২১ | আপডেট: ০৫:৪৩ পিএম, ০৯ মার্চ ২০২১

বগুড়ার শাজাহানপুরে পরকীয়া সম্পর্কের জেরে আপত্তিকর অবস্থায় স্বামীর হাতে ধরা খেয়ে প্রেমিকের বিরুদ্ধেই নারী নির্যাতন মামলা করেছেন এক নারী। এ ঘটনায় পরকীয়া প্রেমিকসহ দুজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (৯ মার্চ) দুপুরে গ্রেফতারদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

এর আগে সকালে মামলাটি করেন ওই নারী। তিনি উপজেলার এক দিনমজুরের স্ত্রী। তার দুই সন্তান রয়েছে।

গ্রেফতাররা হলেন-উপজেলার খরনা ইউনিয়নের দাড়িগাছা নতুনপাড়ার মোজাফ্ফর রহমানের ছেলে (পরকীয়া প্রেমিক) জাহাঙ্গীর আলম (৪০) এবং দাড়িগাছা দক্ষিণপাড়ার ফজলুর রহমানের ছেলে মেহেদী হাসান পলাশ (২৫)।

স্থানীয়রা জানান, ওই নারীর সঙ্গে প্রতিবেশী মোজাফ্ফর রহমানের ছেলে দুই সন্তানের জনক জাহাঙ্গীর আলমের দুই বছর ধরে পরকীয়ার সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এনিয়ে দুই বছরে তিনবার স্থানীয়ভাবে সালিশও হয়েছে। সোমবার (৮ মার্চ) দুপুরে ওই নারীর বাড়িতে আবারো আপত্তিকর অবস্থায় হাতেনাতে ধরে ফেলেন স্বামী। এসময় জাহাঙ্গীর আলমকে মারধর করে ঘরে আটকে রাখেন স্বামী ও তার স্বজনরা। খবর পেয়ে জাহাঙ্গীরের লোকজন দলবেঁধে গিয়ে হামলা চালিয়ে তাকে ছিনিয়ে নিয়ে যান।

এ ঘটনায় ওই নারী বাদী হয়ে পরকীয়া প্রেমিক জাহাঙ্গীর আলমসহ ছয়জনকে আসামি করে নারী নির্যাতন দমন আইনে থানায় মামলা করেন।

শাজাহানপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, মামলার এজাহারে বাদী আসামির বিরুদ্ধে জোরপূর্বক শ্লীলতাহানি ও যৌন পীড়ন এবং হামলা-মারপিটের অভিযোগ করেছেন। মামলার প্রধান দুই আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে। অপর আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

এসআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]