যেকোনো সময় ভেঙে পড়তে পারে সেতুটি

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নওগাঁ
প্রকাশিত: ০৯:১১ এএম, ১৯ এপ্রিল ২০২১

নওগাঁর ধামইরহাট-আগ্রাদ্বিগুন সড়কের বীরগ্রাম সেতুটি সংস্কারের অভাবে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে। বর্ষা মৌসুমের আগেই সেতুটি মেরামত করা না হলে বন্ধ হয়ে যেতে পারে যোগাযোগ ব্যবস্থা। এতে ভোগান্তিতে পড়বে হাজার হাজার মানুষ।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, সেতুটির মাঝখানে ঢালাই নষ্ট হয়ে বালু ও খোয়া উঠে রড বেরিয়ে এসেছে। সেখানে গর্ত থাকায় সেতুর দক্ষিণ পাশ দিয়ে যানবাহন চলাচল করছে।

পুরো সেতুটি ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। যেকোনো সময় ভেঙে যেতে পারে। সেতুর ওপর পূর্বে একটি বড় গর্তে স্টিলের পাত বসিয়ে কোনো রকমে সচল করা হয়েছে। কিন্তু তার পূর্ব পার্শে আরও একটি গর্ত সৃষ্টি হয়েছে।

দিন দিন গর্তের আকার বৃদ্ধি পাচ্ছে। যেকোনো সময় গর্তের চারিদিকে ঢালাই উঠে পুরো ব্রিজ অচল হয়ে যেতে পারে।

এ রাস্তা দিয়ে উপজেলার আলমপুর, খেলনা, আগ্রাদ্বিগুন ইউনিয়ন এবং পার্শ্ববর্তী সাপাহার ও পোরশা উপজেলাসহ চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার হাজারো মানুষ যাতায়াত করে।

স্থানীয় বীরগ্রামের শিক্ষক আবু ইউসুফ বলেন, সেতুটি মেরামত করা জরুরি। সেতুটি ভেঙে গেলে জেলা ও উপজেলা সদরসহ বিভিন্ন স্থানে যেতে অনেক কষ্ট করতে হবে সবাইকে।

আগ্রাদ্বিগুন বাজারে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আবু মুসা বলেন, সকল প্রকার কাজ করতে আমরা এ রাস্তা ব্যবহার করি। সেতুটি মেরামত করা না হলে আগামী বর্ষা মৌসুমে ভোগান্তিতে পড়তে হবে।

দ্রুত সেতুটি সংস্কারের দাবি জানান তিনি।

ধামইরহাট উপজেলা এলজিইডি প্রকৌশলী আলী হোসেন বলেন, প্রায় ২১ বছর আগে সেতুটি নির্মিত হয়েছে। ট্রাক্টরে করে অতিরিক্তি বালু নিয়ে যাওয়ার কারণে সেতুটি দুই দফা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সেতুটির মেরামতের জন্য জেলা নির্বাহী প্রকৌশলী বরাবর আবেদন করা হয়েছে। তিনি বিষয়টি এলজিইডির সদর দফতরে লিখিতভাবে জানিয়েছেন। আশা করছি, অচিরেই নির্মাণকাজ শুরু হবে।

আব্বাস আলী/এসএমএম/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]