মামুনুল হক গ্রেফতারের প্রতিবাদে কচুয়ায় ভাংচুর, গ্রেফতার ৩

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি চাঁদপুর
প্রকাশিত: ০৭:৫৪ পিএম, ১৯ এপ্রিল ২০২১

হেফাজত নেতা মামুনুল হককে গ্রেফতারের প্রতিবাদে চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলার উত্তর কচুয়া ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে হামলা করেছে হেফাজত কর্মী-সমর্থকরা।

রোববার রাতে তারাবির নামাজের শেষে তারা এ ঘটনা ঘটায়। পরে ইউনিয়ন পরিষদের সচিব মফিজুল ইসলাম বাদী হয়ে ১০-১২ জন এজহার নামীয় আসামিসহ ৬০-৭০ জনকে অজ্ঞাত করে মামলা করেন। এছাড়া ঘটনায় জড়িত অভিযোগে তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গ্রেফতাররা হলেন- দারচর গ্রামের ইউনুছ মিয়ার ছেলে মাকসুদ (৩৫), খিড্ডা গ্রামের মফিজুল ইসলামের ছেলে আরিফ (৩২), উজানী গ্রামের মনু মিয়ার ছেলে আতিক (২৭)।

হেফাজত ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগরীর সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মামুনুল হককে ঢাকায় গ্রেফতারের খবর ছড়িয়ে পড়লে রোববার রাতে তারাবির নামাজের শেষে কচুয়া উত্তর ইউনিয়নের তেতৈয়া, খিড্ডা, নাহারা, দারচর ও উজানী গ্রামের কয়েক শতাধিক হেফাজত কর্মী-সমর্থক দেশীয় অস্ত্র নিয়ে বিক্ষোভ করে। একপর্যায়ে তারা তেতৈয়া গ্রামে ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ের দরজা, জানালা, বৈদ্যুতিক বাল্ব ভাংচুরসহ হাতুড়ি দ্বারা পিটিয়ে দেয়াল ফাটিয়ে ফেলে। এছাড়া সরকারের উন্নয়ন চিত্র সম্বলিত বিলবোর্ড নিয়ে যায়। খবর পেয়ে কচুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মহিউদ্দিন ঘটনাস্থলে পৌঁছলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়।

ওসি মো. মহিউদ্দিন জানান, ইউনিয়ন কার্যালয়ে হামলা ও ভাংচুরের ঘটনায় জড়িত অভিযোগে তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অন্যদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

এ ঘটনায় সোমবার (১৯ এপ্রিল) বিকালে তেতৈয়া ইউনিয়ন পরিষদের সামনে হেফাজত কর্মী-সমর্থকদের তাণ্ডবের প্রতিবাদে উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা প্রতিবাদ সমাবেশ করে। তারা ঘটনা জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবি জানান।

নজরুল ইসলাম আতিক/এএইচ/এমকেএইচ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]