নারায়ণগঞ্জে গ্যাস লাইন বিস্ফোরণে উড়ে গেছে ভবনের দেয়াল-আসবাবপত্র

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নারায়ণগঞ্জ
প্রকাশিত: ০৩:০২ পিএম, ২৩ এপ্রিল ২০২১

 

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লায় তল্লার বিস্ফোরিত সেই মসজিদের পাশে একটি তিনতলা ভবনে গ্যাস লাইন বিস্ফোরণে উড়ে গেছে ভবনের দেয়ালসহ আসবাবপত্র। বিস্ফোরণের বিকট শব্দে এলাকাবাসীর মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

তল্লা মসজিদে বিস্ফোরণে ৩৪ জন নিহতের ঘটনার পর একই এলাকায় আবারো গ্যাস লাইনের বিস্ফোরণ নিয়ে জনমনে নানান প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

এদিকে বিস্ফোরণে দুটি পরিবারের নারী ও শিশুসহ ১১ জন দগ্ধ হয়েছে। তাদের নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল ও ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে প্রেরণ করা হয়েছে।

শুক্রবার (২৩ এপ্রিল) ভোরে ফতুল্লার তল্লা জামাইবাজার এলাকায় মফিজুল ইসলামের তিনতলা বাড়ির ৩য় তলায় এ ঘটনা ঘটে।

acc

দগ্ধরা হলেন- হাবিবুর রহমান (৫৬), তার স্ত্রী আলেয়া বেগম (৪২), তাদের ছেলে লিমন (২০) ও মেয়ে সাথী (২৫); মিম আক্তার (২২) ও তার তিন মাসের শিশুপুত্র ফাহাদ; নিরাহার (৫৫) ও তার স্ত্রী শান্তা বেগম (৪০), তাদের ছেলে সামিউল (২৬) ও তার স্ত্রী মনোয়ারা আক্তার (১৬)। দগবধ আরেকজনের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

এদের মধ্যে ৫ জনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ণ ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে।

নারায়ণগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের উপ-পরিচালক আবদুল্লাহ আল আরেফিন জানান, ‘তল্লা মসজিদের বিস্ফোরণে ৩৪ জন মুসল্লি নিহত হওয়ার ঘটনাস্থলের কিছু দূরে মফিজুলের বাড়ির তৃতীয় তলায় গার্মেন্টস শ্রমিক ২টি পরিবার বসবাস করতেন। রাতে একটি পরিবারের লোকজন চুলার বার্নার বন্ধ না করেই ঘুমিয়ে পড়েন। এতে চুলা থেকে গ্যাস বের হয়ে রান্নাঘরসহ অন্যান্য ঘরে ছড়িয়ে জমাট বেঁধে থাকে। ভোরে রান্নার জন্য চুলায় আগুন জ্বালাতেই গ্যাসের বিস্ফোরণ ঘটে। এ সময় কয়েকটি দেয়াল উড়ে যায়।’

মো. শাহাদাত হোসেন/এমএইচআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]