ছেলেকে ঈদে জামা কিনে না দেয়ায় স্বামী-স্ত্রীর দুই পক্ষের সংঘর্ষ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি পটুয়াখালী
প্রকাশিত: ০৬:০৫ পিএম, ১৪ মে ২০২১ | আপডেট: ০৬:০৬ পিএম, ১৪ মে ২০২১

পটুয়াখালীর গলাচিপায় ছেলেকে ঈদে নতুন জামা কিনে না দেয়ায় স্বামী-স্ত্রীর দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে অন্তত সাতজন আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে ছয়জনের অবস্থা গুরুতর। তাদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ।

ঈদের দিন শুক্রবার (১৪ মে) উপজেলার রতনদি তালতলী ইউনিয়নের বালির হাওলা গ্রামের বাদল হাওলাদারের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

Clash-(6).jpg

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার রতনদি তালতলী ইউনিয়নের বালির হাওলা গ্রামের বাদল হাওলাদার (৩৫) তার সাত বছরের ছেলেকে ঈদে নতুন জামা কিনে না দেয়ায় বৃহস্পতিবার (১৩ মে) রাতে কারণ জিজ্ঞাসা করেন স্ত্রী লুৎফার বেগম (৩০)। এনিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বাগবিতণ্ডা হয়। এক পর্যায়ে বাদল তার স্ত্রীকে মারধর করেন।

লুৎফার মারধরের ঘটনা তার বাবার বাড়ির লোকজনকে জানালে শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে তার ভাইয়েরা বাদলের বাড়িতে গিয়ে বাদলকে গালমন্দ করেন। এতে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেধে যায়। এসময় বাদল, লুৎফার বেগম, ফকু হাওলাদার, আবুল কাসেম, মিন্টু হাওলাদার, রাসাদুল ও সোহাগ আহত হন। গলাচিপা থানা পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে লুৎফার বেগমের ভাই আলামিন ও আলমগীরকে আটক করে।

Clash-(6).jpg

গলাচিপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এমআর শওকত আনোয়ার ইসলাম বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল যায়। তবে এখনো কোনো পক্ষ থানায় অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এসআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]