অপহরণের ১০ দিন পর মাদরাসাছাত্রী উদ্ধার, গ্রেফতার ১

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ফরিদপুর
প্রকাশিত: ০৪:৩৫ পিএম, ২৫ জুলাই ২০২১

ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গায় অপহরণের ১০ দিন পর অষ্টম শ্রেণির এক মাদরাসা ছাত্রীকে নড়াইল থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় অভিযুক্ত অপহরণকারী জিয়া ফকিরকে (৪০) গ্রেফতার করা হয়েছে।

শনিবার (২৪ জুলাই) সন্ধ্যায় নড়াইলের লোহাগড়ার গোপিনাথপুর গ্রাম থেকে তাকে গ্রেফতার ও ছাত্রীকে উদ্ধার করা হয়।

রোববার (২৫ জুলাই) দুপুরে তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। আটক জিয়া বোয়ালমারীর রুপাপাত গ্রামের ছাত্তার ফকিরের ছেলে।

এর আগে ১৯ জুলাই ওই মাদরাসা ছাত্রী অপহরণের শিকার হলে তার মা আলফাডাঙ্গা থানায় মামলা করেন। মামলা নং- ৬।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, জিয়া রাস্তায় ও হাটে ফেরি করে মালামাল বিক্রি করেন। ফেরি করে মালামাল বিক্রির অজুহাতে প্রায়ই ওই মাদরাসা ছাত্রীর বাড়িতে এসে গল্প করতেন। যেহেতু জিয়া তার বাবার বয়সী ফলে পরিবারের লোকজন এ বিষয় নিয়ে মাথা ঘামাতেন না। কিন্তু একপর্যায়ে ওই ছাত্রীকে প্রেমের প্রস্তাব দিলে পরিবারের লোকজন তাকে আসতে মানা করে দেয়।

এরপর গত ১৫ জুলাই বিকেলে বাড়ি থেকে ওষুধ কেনার জন্য পায়ে হেঁটে হেলেঞ্চা বাজারের উদ্দেশে রওনা হয় ওই ছাত্রী। পথে টিকরপাড়া ব্রিজের ওপর গেলে অভিযুক্ত জিয়া পূর্বপরিকল্পিতভাবে তাকে অপহরণ করে একটি মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে যান।

এ ব্যাপারে ভুক্তভোগীর মা বলেন, ঘটনার দিন আমার মেয়ে সন্ধ্যা হলেও বাড়িতে ফিরে না আসায় আশপাশে অনেক খোঁজাখুঁজি করি। পরে জানতে পারি, তাকে অপহরণ করা হয়েছে। এরপর থানায় মামলা করি।

আলফাডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ওয়াহিদুজ্জামান জানান, অভিযুক্তকে আদালতের মাধ্যমে ফরিদপুর কারাগারে পাঠানো হয়েছে। ভুক্তভোগীর মেডিকেল পরীক্ষা করে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করার প্রস্তুতি চলছে।

এন কে বি নয়ন/এসএমএম/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]