ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মহাসড়ক থেকে তরুণের মরদেহ উদ্ধার

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ব্রাহ্মণবাড়িয়া
প্রকাশিত: ০৩:২৭ এএম, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মহাসড়কের একটি সেতুর ওপর থেকে মো. রাজু মিয়া (১৮) নামের এক তরুণের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। বুধবার রাত ১১টার দিকে কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কের রামরাইল সেতুর ওপর থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

মো. রাজু মিয়া জেলা সদরের ভাদুঘর গ্রামের মুসলেম উদ্দিনের ছেলে। সে ঢাকা-ব্রাহ্মণবাড়িয়া চলাচলকারী ‌‘রয়েল সার্ভিস’ নামের এক বাসে হেলপার হিসেবে কর্মরত ছিল।

এদিকে, হাসপাতালে চিকিৎসক রাজুকে মৃত ঘোষণার পর মরদেহ ময়নাতদন্ত করতে অপরাগতা জানায় রাজুর এলাকাবাসী। এসময় তারা মরদেহটি ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে বলে জানা যায়। এ নিয়ে উপস্থিত পুলিশের সঙ্গে বাকবিতণ্ডা হয় তাদের। পরে পুলিশ মরদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়।

২৫০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালে হানিফ নামের এক যুবক জানান, আমি মোটরসাইকেলযোগে কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়ক দিয়ে জেলা শহরের দিকে ফিরছিলাম। পথিমধ্যে রামরাইল সেতুর ওপর কয়েকজনকে একটা কিছু ঘিরে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখে মোটরসাইকেল থামিয়ে কাছে যাই। সেখানে গিয়ে দেখি একটি ছেলে অচেতন হয়ে পড়ে আছে। উপস্থিত লোকজন জানায়, ছেলেটিকে একটি বাস থেকে ফেলে দেওয়া হয়েছে। আমি ৯৯৯-এ কল দিলে পুলিশ এসে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসে। হাসপাতালে ইসিজি করে চিকিৎসক জানান, সে মারা গেছে।

২৫০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক মো. সোলায়মান মিয়া জানান, হাসপাতালে নিয়ে আসার প্রায় দুই ঘণ্টা আগে ওই তরুণ মারা যায়। আমরা ইসিজি করে তার মৃত্যু নিশ্চিত করি।

খাঁটিহাতা হাইওয়ে থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহজালাল আলম মরদেহ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, তাৎক্ষণিক খবর পেয়ে সদর মডেল থানা পুলিশ মরদেহটি উদ্ধার করে। পরে হাসপাতালে ও ঘটনাস্থলে যায় হাইওয়ে থানা পুলিশ। মরদেহটি হাসপাতালের মর্গে ময়নাতদন্তের জন্য রাখা আছে। ঘটনাটি তদন্ত করা হচ্ছে বলে জানান তিনি।

আবুল হাসনাত মো. রাফি/এআরএ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]