আদালতে স্বীকারোক্তি দিলেন সেই চাচি

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি মাদারীপুর
প্রকাশিত: ০২:২৬ পিএম, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

মাদারীপুরে আড়াই বছর বয়সী শিশু কুতুব উদ্দিনকে হত্যার দায় স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন আপন চাচি।

শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) সকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা শিবচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) আমীর হোসেন সেরনিয়াবাদ।

তিনি জানান, শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) অপহরণের তিনদিন পর শিবচর উপজেলার জাজিরার আরবআলী বেপারী কান্দি গ্রামে চাচার বাড়ির ভবনের নির্মাণাধীন টয়লেটের মেঝের নিচ থেকে শিশু কুতুব উদ্দিনের লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় হত্যা মামলা করা হলে শিশুটির আপন বড় চাচি নার্গিস আক্তার ও তার মেয়ে হাফসা আক্তারকে গ্রেফতার করা হয়। পরে বিকেল ৫টার দিকে তাদের মাদারীপুর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করা হয়। এসময় সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. সাইদুর রহমান নার্গিস আক্তারের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি রেকর্ড করেন। তবে নার্গিস আক্তারের মেয়ে হাফসা আক্তারের বয়স মাত্র ১৩ বছর হওয়ায় তার জবানবন্দি নেওয়া হয়নি। তাকে আদালতের কিশোরী জেলে রাখা হয়েছে। রোববার (১৯ সেপ্টেম্বর) হাফসা আক্তারকে আদালতে হাজির করার কথা রয়েছে।

কাঠালবাড়ি ইউনিয়নের বাংলাবাজার এলাকার ইসমাইল বেপারীর আড়াই বছর বয়সী শিশু কুতুব উদ্দিনকে গত ১৪ সেপ্টেম্বর কৌশলে বাড়ি থেকে নিয়ে যায় তার বড় ভাবি নার্গিস আক্তার ও তার মেয়ে হাফসা আক্তার। পরে শিশুটিকে হত্যা করে বাড়ির নির্মাণাধীন বাথরুমে পুঁতে রাখা হয়। এ ঘটনায় ১৫ সেপ্টেম্বর শিশুটির বাবা শিবচর থানায় একটি অপহরণ মামলা করেন। পরে নার্গিস আক্তার ও তার মেয়েকে গ্রেফতারের পর তাদের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী ওই শিশুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ-ঘটনায় হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এ কে এম নাসিরুল হক/ এফআরএম/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]