নেত্রকোনায় কৃষককে বিবস্ত্র করে নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নেত্রকোনা
প্রকাশিত: ০৮:৫৩ এএম, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১

নেত্রকোনার দুর্গাপুর উপজেলায় জমি-সংক্রান্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে কামাল আকন্দ নামের এক কৃষককে (৫০) বিবস্ত্র করে নির্যাতন করা হয়েছে। এ-সংক্রান্ত একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

অভিযোগ উঠেছে, ওই কৃষককে ডেকে এনে প্রকাশ্যে এ নির্যাতন করা হয়েছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর ছোটভাই মো. হক মিয়া (৪৭) বাদী হয়ে রোববার (১৯ সেপ্টেম্বর) দুর্গাপুর থানায় একটি অভিযোগ দেন।

কামাল আকান্দ উপজেলার কাকৈরগড়া ইউনিয়নের পুকুরিয়াকান্দা গ্রামের মৃত লতিফ আকন্দের ছেলে। তিনি বর্তমানে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের অর্থোপেডিক্স বিভাগে চিকিৎসাধীন।

এ ঘটনায় অভিযুক্তরা হলেন-একই ইউনিয়নের শুকনাকুড়ি গ্রামের মৃত আছর আলী ফকিরের ছয় ছেলে হামিদ ফকির (৬৫), করিম ফকির (৬০), কুদ্দুছ ফকির (৫৭), রহমান ফকির (৫৪), ছোবাহান ফকির (৫০), ছিদ্দিক ফকির (৪৭) এবং তাদের সন্তানসহ ১৫ জন।

বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) বিকেলে শ্যামগঞ্জ-বিরিশিরি আঞ্চলিক মহাসড়কে শুকনাকুড়ি পেট্রল পাম্প ও নিরিবিলি হোটেলের সামনে কামাল আকন্দকে প্রকাশ্য মারধরের ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগীর ভাতিজা মাসুদ আকন্দ বলেন, অভিযুক্তরা আমাদের জমি দখল করে রাখায় চাচা কামাল আকন্দ মামলা করেন। বৃহস্পতিবার বিকেলে তিনি দুর্গাপুর থেকে মোটরসাইকেলযোগে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা দেন। পথের মধ্যে মঞ্জুরুল হক ফোন দিয়ে নিরিবিল হোটেলের সামনে আসতে বলেন। সেখানে গেলে অভিযুক্তরা তাকে মারধর করেন। ব্যাপক মরধরে চাচা মাটিতে লুটিয়ে পড়েন।

কামাল আকন্দ বর্তমানে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে অর্থোপেডিক্স বিভাগে ভর্তি আছেন। তার কোমর থেকে নিচের অংশ অবশ হয়ে গেছে। তার অবস্থা সঙ্কটাপন্ন বলে জানান ভুক্তভোগীর ভাতিজা।

দুর্গাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শাহনুর এ আলম বলেন, এ ঘটনায় দেওয়া অভিযোগটি মামলা হিসেবে রেকর্ডভুক্ত করা হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

এইচ এম কামাল/এসআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]