মসজিদে সংঘর্ষে জড়ালো দুই মেম্বার প্রার্থীর সমর্থকরা, আহত ২৫

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি বাগেরহাট
প্রকাশিত: ০৯:৫২ পিএম, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১

বাগেরহাটের বিষ্ণুপুর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের বিজয়ী ও পরাজিত মেম্বার প্রার্থীর অনুসারীদের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয়পক্ষের অন্তত ২৫ জন আহত হয়েছেন। শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) জুমার নামাজ শেষে মসজিদের ভেতরেই এ সংঘর্ষ শুরু হয়।

আহতরা হলেন শেখরা গ্রামের রুবেল মল্লিক, সোহেল শেখ, শওকত শেখ, রাসেল শেখ, রবিউল শেখ, সাইফুল শেখ, মাহতাব মল্লিক, সজিব মোল্লা, কামরুল ফকির, মল্লিক ইমামুল কবির, সোহেল মল্লিক, জাহাঙ্গীর মল্লিক, বাবুল ফকির, তৈয়ব আলী মল্লিক, আলম মল্লিক, মহিউদ্দিন শেখ।

তাদেরকে উদ্ধার করে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এরমধ্যে গুরুতর অবস্থায় বাবুল ফকির (৫৫) নামে একজনকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

পুলিশ ও প্রতক্ষদর্শীরা জানায়, জুমার নামাজের শেষে বিষ্ণুপুর শেকড়া মসজিদে পরাজিত মেম্বার প্রার্থী আব্দুল লতিফের সমর্থক বাবুল ফকির ও কামরুল ফকিরের সঙ্গে ৯নং ওয়ার্ডের সদ্য নির্বাচিত মেম্বার আনিচুর রহমানের গ্রুপের রবিউল ও বাচ্চু মল্লিক মসজিদের মধ্যেই বাগবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন। একপর্যায়ে ধারালো অস্ত্র নিয়ে উভয়পক্ষ সংর্ঘষে লিপ্ত হয়।

পরাজিত মেম্বার আব্দুল লতিফ বলেন, ‘পরিকল্পিতভাবে আনিচুর রহমানের লোকজন ধারালো অস্ত্র নিয়ে আমার সমর্থকদের ওপর হামলা করেছে। আমার সমর্থকদের মধ্যে ১৩ জন হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।’

নির্বাচিত মেম্বার অনিচুর রহমান হামলার বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, ‘মসজিদের মধ্যেই বাবুল ফকির, কামরুল ইশারাত শেখসহ বেশ কয়েকজন আমার লোকজনের সঙ্গে মারমুখী আচরণ করেন। তখন উভয়পক্ষের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে।’

বাগেরহাট মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কে এম আজিজুর ইসলাম বলেন, ‘ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। পরিস্থিতি এখন স্বাভাবিক রয়েছে।’

শওকত আলী বাবু/এএএইচ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]