মাদককারবারির ছুরিকাঘাতে নিহত এএসআই’র দাফন সম্পন্ন

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি কুড়িগ্রাম
প্রকাশিত: ০৪:০৪ এএম, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১

মাদককারবারির ছুরিকাঘাতে নিহত রংপুরের হারাগাছ থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) পিয়ারুল ইসলামের দাফন সম্পন্ন করা হয়েছে।

শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) রাত ১০টার দিকে কুড়িগ্রামের রাজারহাটের বিদ্যানন্দ ইউনিয়নের চন্দ্রপাড়া গ্রামে নিজ বাড়ির পাশের মাঠে তার নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। পরে পারিবারিক গোরস্থানে তাকে চিরনিদ্রায় শায়িত করা হয়।

এএসআই পিয়ারুলের জানাজায় রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের এএসপি (সদর সার্কেল) মো. আলতাবুর রহমান, রাজারহাট উপজেলা চেয়ারম্যান জাহিদ সারোয়ারদী বাপ্পী, হারাগাছ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শওকত আলী সরকার, রাজারহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রাজু সরকার, নিহতেরসহকর্মী, আত্মীয়-স্বজনসহ এলাকাবাসী অংশ নেন।

jagonews24

জানাজাপূর্ব সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে এএসপি আলতাবুর রহমান বলেন, ‘এএসআই পিয়ারুল ইসলাম অত্যন্ত মেধাবী ও চৌকস কর্মকর্তা ছিলেন। মাদকবিরোধী অভিযানে তার বিশেষ দক্ষতা ছিল। যে মাদককারবারি আমাদের মেধাবী কর্মকর্তা পিয়ারুলকে হত্যা করেছে, আমরা তাকে গ্রেফতার করেছি।’

স্মৃতিচারণা করতে গিয়ে পেয়ারুলের ব্যাচমেট মো. ওবায়দুল হক বলেন, ‘আমরা একজন ভালো সহযোদ্ধাকে হারালাম। তিনি অত্যন্ত সাহসী ও মেধাবী কর্মকর্তা ছিলেন। আমরা তার বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করছি।’

প্রতিবেশী আমির ফয়সাল বলেন, ‘পিয়ারুলকে ছোটবেলা থেকে দেখে আসছি। তিনি খুব সাহসী ছিলেন। এলাকায় তাকে ভালো ছেলে হিসেবে সবাই চিনে। আমরা নম্র-ভদ্র ও মেধাবী একজন মানুষকে হারালাম।’

jagonews24

জানা গেছে, শুক্রবার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে হারাগাছ থানাধীন সাহেবগঞ্জ এলাকা থেকে পলাশ নামের এক মাদককারবারিকে গাঁজাসহ আটক করেন পিয়ারুল ইসলাম। এসময় পলাশ তার কাছে থাকা ছুরি দিয়ে পিয়ারুলের বুকে আঘাত করেন। এতে গুরুতর আহত হন তিনি

দ্রুত তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে অস্ত্রোপচারের পর আইসিইউতে নেওয়া হয় তাকে। শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) বেলা সোয়া ১১টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান এএসআই পিয়ারুল

পিয়ারুল ইসলাম ২০১১ সালের ১৫ জানুয়ারি পুলিশ বাহিনীতে কনস্টেবল হিসেবে যোগদান করেন। ২০১৮ সালে তিনি এএসআই হিসেবে পদোন্নতি পান। পরে তিনি মাহিগঞ্জ থানা ও ডিবিতে দায়িত্ব পালন করেন। সর্বশেষ রংপুরের হারাগাছ থানা কর্মরত ছিলেন।

পিয়ারুলের গ্রামের বাড়ি রাজারহাট উপজেলার বিদ্যানন্দ ইউনিয়নের চন্দ্রপাড়ায়। তার বাবার নাম আব্দুল রহমান মিন্টু। দুই ভাই ও দুই বোনের মধ্যে পিয়ারুল সবার বড়। তিনি পার্শ্ববর্তী উলিপুর উপজেলায় বিয়ে করেছেন। পেয়ারুলের দুই ছেলে রয়েছে।

মো. মাসুদ রানা/এএএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]