ভেদরগঞ্জে ইলিশ রক্ষা অভিযানে হামলা, আহত ৪, নিখোঁজ ১

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি শরীয়তপুর
প্রকাশিত: ১২:৩৯ এএম, ১০ অক্টোবর ২০২১
ছবি: সংগৃহীত

শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলার সখিপুর থানার পদ্মা নদীতে মা ইলিশ রক্ষা অভিযানে গিয়ে জেলেদের হামলায় দুই পুলিশ সদস্য ও উপজেলা মৎস্য কার্যালয়ের একটি প্রকল্পের দুই কর্মী আহত হয়েছেন। এছাড়া ওই প্রকল্পের এক কর্মী নিখোঁজ রয়েছেন।

আহতরা হলেন- সখিপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মোস্তাফিজুর রহমান, কনস্টেবল মেহেদী হাসান, প্রকল্পের কর্মী জাহাঙ্গীর হোসেন ও ওমর আলী। তাদের চিকিৎসার জন্য চাঁদপুর সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া আব্দুল বারেক মিয়া নামের এক মৎস্য কর্মী নিখোঁজ রয়েছেন।

শনিবার (৯ অক্টোবর) সন্ধ্যায় উপজেলার কাঁচিকাটা ইউনিয়নের মরিচাকান্দি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

সখিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত-ওসি) ওবায়দুল হক জাগো নিউজকে বলেন, হামলায় স্পিডবোট উল্টে আমাদের দু‘টি চায়না রাইফেল পানিতে তলিয়ে যায়। একটি উদ্ধার করা হয়েছে। আরেকটি উদ্ধারে কাজ চলছে। এরই মধ্যে স্পিডবোটসহ দু’টি মোবাইল উদ্ধার করা হয়েছে। আমরা ঘটনাস্থলে আছি। হামলাকারীদের আটকের চেষ্টা চলছে। এ ঘটনায় পুলিশের পক্ষ থেকে মামলা করা হবে বলেও জানানি তিনি।

ভেদরগঞ্জ উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম জানান, সন্ধ্যায় মৎস্য বিভাগ ও পুলিশ প্রশাসন ইঞ্জিনচালিত নৌকা ও স্পিডবোট নিয়ে কাঁচিকাটা ইউনিয়নের মরিচাকান্দি এলাকায় অভিযান পরিচালনা করছিল। এ সময় জেলেরা ইটপাটকেল ছুঁড়ে লাঠিসোঁটা নিয়ে তাদের ওপর হামলা চালায়। হামলায় একটি স্পিডবোট উল্টে যায়। এতে আহত হন সখিপুর থানার দুই পুলিশ সদস্য ও দুজন স্থানীয় মৎস্য কর্মী। এছাড়া একজন মৎস্য কর্মী নিখোঁজ আছেন।

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা প্রণব কর্মকার বলেন, হামলার ঘটনায় আমরা নিন্দা জানাই। যে জেলেরা এমন ঘটনা ঘটিয়েছে তাদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনা হবে। মা ইলিশ রক্ষায় আমাদের যৌথ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

এমএএইচ/

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]