ভেঙে যাওয়া ফ্লাট বাইপাস সড়কে মাছ ধরার হিড়িক

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি লালমনিরহাট
প্রকাশিত: ০১:৪৪ পিএম, ২১ অক্টোবর ২০২১

উজানের ঢল ও ভারতের গজলডোবার সব গেট খুলে দেওয়ায় পানির স্রোতে লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার ভেঙে যায় তিস্তা ব্যারাজের ফ্লাট বাইপাস সড়ক। নদীর পানি কমার সঙ্গে সঙ্গে সেই ভাঙা এলাকায় মাছ ধরার হিড়িক চলছে। কেই চাবিজাল, খেয়াজাল, টানাজাল বা ছেঁকাজাল দিয়ে মাছ ধরছেন। এতে জেলেরাসহ নানা বয়সের স্থানীয় বসিন্দারাও আছেন।

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) সকালে হাতীবান্ধা উপজেলার দোয়ানি এলাকায় দৃশ্য সবার নজর কাড়ছে। ভাঙা এলাকা এবং মাছ ধরা দেখতে পাড়ে ভিড় করেছেন হাজারো উৎসুক জনতা।

jagonews24

খোঁজ জানা গেছে, বুধবার ভোর থেকে ভারত থেকে নেমে আসা প্রবল স্রোতে তিস্তার ফ্লাট বাইপাস সড়কটি ভেঙে যায়। এ সুযোগে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে নদীতে নেমে মাছ ধরার চেষ্টা করছেন অনেকে। পাওয়া যাচ্ছে বিভিন্ন প্রজাতির মাছ। মাছ ধরার পর স্থানীয় সাধুর বাজারে বিক্রি করা হচ্ছে।

তিস্তাপাড়ের জেলে আকবর হোসেন বলেন, বুধবার রাত থেকে তিস্তার পানি কমার সঙ্গে সঙ্গে ফ্লাট বাইপাস এলাকায় প্রচুর পরিমাণে মাছ দেখা দিয়েছে। তাই আমরা মাছ ধরার জন্য জাল ফেলেছি। প্রচুর পরিমাণে জালে মাছ উঠছে।

jagonews24

তিস্তাপাড়ে মাছ ধরতে আসা হাবিবুর বলেন, নদীতে রুই-কাতল, বোয়াল, বোইরালসহ বিভিন্ন জাতের মাছ তিস্তা নদীতে পাওয়া যাচ্ছে।

তিস্তাপাড়ের ইব্রাহিম মিয়া বলেন, দূর-দূরান্ত থেকে বিভিন্ন এলাকার মানুষ জাল নিয়ে এসে মাছ ধরার উৎসবে মেতে উঠছেন।

jagonews24

গড্ডিমারী ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য আব্দুল মালেক জাগো নিউজকে বলেন, একদিকে ঘরবাড়ি পানিতে ডুবে গেছে, অন্যদিকে নদীতে প্রচুর পরিমাণের মাছ দেখা দেওয়ায় অনেকে মাছ ধরছেন। কেউ বিক্রি জন্য আবার কেউ খাওয়ার জন্য ধরছেন।

এসজে/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]