নৌকা প্রতীক দিতে যুবদল নেতার নাম সুপারিশ!

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ব্রাহ্মণবাড়িয়া
প্রকাশিত: ০৮:৩৫ পিএম, ২২ অক্টোবর ২০২১

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন দেওয়ার জন্য কেন্দ্রে এক যুবদল নেতার নাম সুপারিশ করার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় উপজেলার বীরগাঁও ইউনিয়নে সমালোচনা শুরু হয়েছে।

স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাদের অভিযোগ, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বোর্ডের কাছে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে নাম পাঠানো আনোয়ার হোসেন সৌদি আরবের একটি প্রাদেশিক যুবদল কমিটির নেতা। ওই কমিটির একটি ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

আওয়ামী লীগের একটি সূত্র জানিয়েছে, আগামী ২৮ নভেম্বর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার ২১টি ইউনিয়নের মধ্যে ১৩টি ইউনিয়নের নির্বাচনের ভোট গ্রহণ। নির্বাচনী তফসিল ঘোষণার পর থেকে শুরু হয়েছে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীক পেতে দৌড়ঝাঁপ। বীরগাঁও ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন দেওয়ার জন্য বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) তিনজনের নাম কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বোর্ডের কাছে পাঠায় জেলা আওয়ামী লীগ। এ তিনজন হলেন-আনোয়ার হোসেন, আফজাল হোসেন ও এস এম আলমগীর। এদের মধ্যে আফজাল বীরগাঁও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং আলমগীর জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক।

আনোয়ার হোসেনের নাম আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বোর্ডে পাঠানোর খবর ছড়িয়ে পড়লে অন্য দুই প্রার্থীসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের মধ্যে ক্ষোভ তৈরি হয়। আনোয়ার হোসেন সৌদি আরবের মদিনা মনোয়ারা প্রাদেশিক যুবদলের সদস্য উল্লেখ করে ফেসবুকে ওই কমিটির একটি ছবি ছড়িয়ে পড়ে।

সূত্র আরও জানায়, বীরগাঁও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আফজাল হোসেনও প্রত্যয়ন করেছেন আনোয়ার হোসেন কখনোই আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন না। তিনি দীর্ঘদিন ধরে সৌদি আরবে বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিলেন ও আছেন বলে প্রত্যয়নে উল্লেখ করা হয়।

তবে দীর্ঘদিন ধরে আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত উল্লেখ করে আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘সব অভিযোগ মিথ্যা। আমার বিরুদ্ধে এগুলো তাদের বানানো, এডিট করা। আমার সঙ্গে বিএনপি শব্দটা একেবারেই বানোয়াট। আমি জানি আমি সত্য’।

বীরগাঁও ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী এস এম আলমগীর বলেন, আনোয়ার হোসেনের পরিবার বিএনপির রাজনীতি করে। সে কখনোই আওয়ামী লীগের কোনো মিছিল-মিটিং কিংবা কোনো কর্মসূচিতে অংশ নেয়নি।

বীরগাঁও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আফজাল হোসেন বলেন, কোনো সময়ই আনোয়ার আওয়ামী লীগ করেনি। সে সৌদি আরবে যুবদলের কমিটির সদস্য। সেই কমিটির ছবিও আমরা পেয়েছি। আমরা এগুলো বানাইনি, তার বন্ধু-বান্ধবরাই এগুলো আমাদের কাছে পাঠিয়েছে। খালেদা জিয়ার ব্যানারে তার ছবি রয়েছে, এমন ব্যানারের ছবিও আমাদের হাতে এসেছে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আল মামুন সরকার বলেন, উপজেলা থেকে যে তালিকা এসেছে, সেই তালিকা নিয়ে ছয় সদস্যের মন্তব্য কমিটির কাছে যে তথ্য আছে, প্রত্যেকের নামের পাশে তথ্যগুলো দেওয়া হয়েছে। প্রার্থী কী করে এসেছে, তার ভাই কী করে সবকিছুই মন্তব্য কলামে লেখা হয়েছে।

আবুল হাসনাত মো. রাফি/এসআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]