‌‌‌‌‘বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের ঘর নির্মাণ করে দেওয়া হবে’

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি লালমনিরহাট
প্রকাশিত: ০৮:৫২ পিএম, ২২ অক্টোবর ২০২১

বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত প্রায় ৫০ হাজার পরিবারকে দুই শতক জমিসহ ঘর নির্মাণ করে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান।

শুক্রবার (২২ অক্টোবর) দুপুর ২টার দিকে লালমনিরহাটে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত এক হাজার ৫০০ পরিবারের মাঝে ত্রাণসামগ্রী বিতরণের সময় তিনি এ কথা বলেন।

কালিগঞ্জ উপজেলার কাকিমা মহিমারঞ্জন স্মৃতি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে এসব ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করা হয়।

এসময় তিনি বলেন, বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের কাছে ত্রাণসামগ্রী পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও তিস্তা নদী খনন ও বাঁধ নির্মাণে জাইকা ও বাংলাদেশ সরকার ডেল্টা প্ল্যানের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে।

তিনি আরও বলেন, তিস্তার আকস্মিক বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ৪টি জেলার প্রত্যেকটিতে ৫০ মেট্রিক টন করে চাল, পাঁচ লাখ করে টাকা এবং এক হাজার প্যাকেট করে শুকনা খাবার দেওয়া হচ্ছে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমরা যত শিগগির সম্ভব তিস্তা নদীর খনন কাজ শুরু করবো। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোকে একটু ধৈর্য্য ধরতে হবে। এছাড়াও ক্ষতিগ্রস্ত এলাকার রাস্তাঘাটের তালিকা করে মন্ত্রণালয়ে দিলে শিগগির রাস্তার কাজ শুরু করা হবে।

জেলা প্রশাসন এবং দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে ত্রাণ বিতরণ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক আবু জাফর। এসময় বক্তব্য দেন লালমনিরহাট-১ আসনের সংসদ সদস্য মোতাহার হোসেন, ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মহসিন এবং পুলিশ সুপার আবিদা সুলতানা।

ত্রাণ বিতরণ শেষে প্রতিমন্ত্রী বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত কাকিনা-রংপুর-মহিপুর মহাসড়ক পরিদর্শন করেন এবং শিগগিরই রাস্তাটি সংস্কার করে জনগণের জন্য খুলে দেওয়ার নির্দেশ দেন।

মো. রবিউল হাসান/ইউএইচ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]