সেই মাফিজুলের এবার ৪০ বছরের কারাদণ্ড

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি জয়পুরহাট
প্রকাশিত: ০৬:০৪ পিএম, ২৬ অক্টোবর ২০২১

জয়পুরহাটে স্কুলছাত্রীকে অপহরণ ও ধর্ষণচেষ্টার মামলায় মাফিজুল ইসলামের (৩৫) ৪০ বছরের সশ্রম কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে দেড় লাখ টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে আরও দেড় বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। দণ্ডপ্রাপ্ত মাফিজুল অপহরণের এক মামলায় কারাগারে আছেন।

মঙ্গলবার (২৬ সেপ্টেম্বর) বিকেলে জয়পুরহাটের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক রুস্তম আলী এই রায় ঘোষণা করেন।

সাজাপ্রাপ্ত মাফিজুল জেলার ক্ষেতলাল উপজেলার তিলাবুদুল-মুন্সিপাড়া গ্রামের আওলাদ হোসেনের ছেলে।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণ দিয়ে রাষ্ট্র পক্ষের আইনজীবী ফিরোজা চৌধূরী জাগো নিউজকে বলেন, ২০১৮ সালের ১৮ সেপ্টেম্বর জয়পুরহাটের একটি উচ্চবিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী ছুটি শেষে অটোরিকশাযোগে বাড়ি ফিরছিল। পথে জেলা শহরের খঞ্জনপুর এলাকায় ওই অটোরিকশায় মাফিজুল ওঠেন। কৌশলে মেয়েটিকে আরেকটি অটোরিকশায় নিয়ে সদর উপজেলার করিম নগর এলাকায় একটি বাঁশঝাড়ে নিয়ে হাত ও মুখ বেঁধে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। এ সময় মেয়েটি চিৎকার করলে মাফিজুল পালিয়ে যান।

ফিরোজা চৌধূরী বলেন, মেয়েটি বাড়ি ফিরে মা-বাবাকে বিষয়টি জানালে মাফিজুলের নাম ও ঠিকানা নিশ্চিত হয়ে একই সালের ২৩ সেপ্টেম্বর জয়পুরহাট সদর থানায় অপহরণ ও ধর্ষণচেষ্টার মামলা করেন। দীর্ঘ শুনানি শেষে শিশু ও নারী নির্যাতন দমন আদালতের বিচারক অপহরণের দায়ে তার ৩০ বছর ও ধর্ষণচেষ্টার দায়ে ১০ বছরের কারাদণ্ড দেন। একই সঙ্গে ১ লাখ টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে আরও দেড় বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। এর আগে চতুর্থ শ্রেণির এক ছাত্রীকে অপহরণ মামলায় ১৩ সেপ্টেম্বর একই আদালতের রায়ে মাফিজুল ২৫ বছরের কারাভোগ করছেন।

রাশেদুজ্জামান/এসজে/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]