পেট্রাপোল চেকপোস্টে স্পট করোনা পরীক্ষা, দুর্ভোগে যাত্রীরা

উপজেলা প্রতিনিধি উপজেলা প্রতিনিধি বেনাপোল (যশোর)
প্রকাশিত: ০৬:৪৯ পিএম, ০১ ডিসেম্বর ২০২১

ভারতের পেট্রাপোল চেকপোস্টে পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই বাংলাদেশি পাসপোর্টধারীদের স্পট করোনা পরীক্ষায় দুর্ভোগে পড়ছেন যাত্রীরা।

বুধবার (১ ডিসেম্বর) সকাল থেকে এ কার্যক্রম শুরু করেছে ভারতের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষ।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, সকাল থেকে ভারতীয় ইমিগ্রেশন পুলিশ ধাপে ধাপে ৫০ বাংলাদেশির করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ করে। যাদের নমুনা নেওয়া হয়েছে তাদের মধ্যে যদি কারো শরীরে করোনার উপস্থিতি না থাকে তাহলে আর কারো স্পট করোনার পরীক্ষা করা হবে না। তবে ৫০ জনের মধ্যে কারো শরীরে করোনার রিপোর্ট পজিটিভ আসে তাহলে প্রত্যেক যাত্রীকে পরীক্ষা করা হবে। নমুনা রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত পাসপোর্টযাত্রীদের ছাড়পত্র দেওয়া হচ্ছে না।

সেখানকার এক ব্যবসায়ী জানান, করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ‘ওমিক্রন’ নিয়ে বিশ্বব্যাপী তোলপাড় হওয়ায় ভারতীয় ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষ এ ব্যবস্থা নিয়েছে বলে আমার মনে হয়।

ভারত ফেরত বাংলাদেশি পাসপোর্টধারী গোপাল চন্দ্র বলেন, আমি এক সপ্তাহ আগে ভারতে যাই। বুধবার দেশে ফেরার সময় দেখতে পেলাম বাংলাদেশ থেকে যাওয়া প্রায় ৫০-৬০ জন যাত্রীকে করোনা পরীক্ষার জন্য তাদের বসিয়ে রেখেছে। এতে করে যাত্রীদের দীর্ঘ লাইন পড়ে গেছে।

বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ রাজু আহম্মদের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, শুনছি পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ স্পট করোনা পরীক্ষা করছে। এর বেশি কিছু জানা নেই।

উল্লেখ্য, দক্ষিণ আফ্রিকায় করোনাভাইরাসের ‘ওমিক্রন’ ধরনটি প্রথম শনাক্ত হয়। সরকারের নির্দেশনা অনুসারে ‘ঝুঁকিপূর্ণ’ দেশের তালিকায় রয়েছে বাংলাদেশ, যুক্তরাজ্য, গোটা ইউরোপ এবং আরও ১১টি দেশ।

মো. জামাল হোসেন/আরএইচ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]