বৃদ্ধার থাকার ঘরটিও পুড়ে হলো ছাই

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি পাবনা
প্রকাশিত: ০৯:৫৪ পিএম, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১

পাবনা সদর উপজেলার অসহায় দুস্থ নারী ফরিদা বেগম (৬০)। তার সম্বল বলতে ছিল একটিমাত্র ঘর। সেই ঘরটিও আগুনে পুড়ে ছাই হলো। এখন তার মাথা গোঁজার জায়গাটুকুও রইল না।

মঙ্গলবার (৭ ডিসেম্বর) ভোরের দিকে সদর উপজেলার দোগাছি ইউনিয়নের বাংলাবাজার দক্ষিণ রামচন্দ্রপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ফরিদা বেগম ওই গ্রামের মৃত বারেক রহমানের স্ত্রী। ঘটনার সময় তিনি বাড়ি ছিলেন না।

প্রতিবেশীরা জানান, মঙ্গলবার ভোর সাড়ে ৪টার দিকে হঠাৎ করেই তারা ঘরটিতে আগুন লাগা দেখতে পান। তারা আগুন নেভানোর চেষ্টা করেন। ফায়ার সার্ভিসেও খবর দেওয়া হয়। তবে কিছুক্ষণের মধ্যেই পুড়ে ছাই হয়ে যায় ঘরটি।

ঘরটিতে একাই থাকতেন ফরিদা বেগম। কিছুদিন হলো তার মেয়ে তার কাছে বেড়াতে এসেছেন। ফরিদা বেগমের মা অনেক বয়স্ক ও অসুস্থ। অসুস্থ মাকে দেখতে সোমবার (৬ ডিসেম্বর) তিনি তার মেয়েকেও সঙ্গে নিয়ে যান। রাতে মায়ের কাছেই থেকে যান তিনি। তাই এসময় ওই ঘরে কেউ ছিলেন না।

ফরিদা বেগম বলেন, প্রতিবেশিরা খবর দেওয়ার পর বাড়ি ফিরে দেখি কোনোকিছুই আর অবশিষ্ট নেই। আগুনে ঘর ও ঘরের ভেতরে থাকা কিছু টাকা, কাপড়-চোপড়, আসবাবপত্র, খাদ্যদ্রব্যসহ সবকিছুই পুড়ে গেছে। কিভাবে আগুন লাগলো তাও জানি না।

এ ব্যাপারে দোগাছি ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যান আলী হাসান বলেন, ঘটনাটি তিনি শুনেছেন। এটা খুবই দুঃখজনক। ইউনিয়ন পরিষদ থেকে ক্ষতিগ্রস্ত বৃদ্ধাকে সহযোগিতা করা হবে।

আমিন ইসলাম জুয়েল/এসআর/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]