৭ মণের শাপলাপাতা বিক্রি হলো সোয়া লাখে

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি বরগুনা
প্রকাশিত: ০৩:১৯ পিএম, ১৭ জানুয়ারি ২০২২
মাছটির ওজন ২৮০ কেজি

বরগুনার পাথরঘাটায় গভীর সাগরে জেলের জালে ধরা পড়েছে ২৮০ কেজির (৭ মণ) ওজনের একটি শাপলাপাতা মাছ। মাছটি এক লাখ ১২ হাজার টাকায় বিক্রি করা হয়েছে।

সোমবার (১৭ জানুয়ারি) দুপুরে জেলা ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি মোস্তফা চৌধুরীর বিষয়টি নিশ্চত করেছেন।

এর আগে রোববার (১৬ জানুয়ারি) এফবি মায়ের দোয়া ট্রলারের জেলেদের জালে ধরা পরে মাছটি। আজ সকালে পাথরঘাটা বিএফডিসি মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রে নিয়ে এলে পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার সোহরাব হোসেন নামের একজন পাইকার মাছটি কিনে নেন।

এফবি মায়ের দোয়া ট্রলারের মাঝি ওসমানের বরাত দিয়ে আড়তদার টিপু খান জানান, অন্য মাছের সঙ্গে শাপলাপাতা মাছটি জালে ধরা পড়ে। মাছটি পাথরঘাটা বিএফডিসি মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রে নিয়ে এসে প্রকাশ্য নিলাম ডাকা হয়। পাইকার সোহরাব হোসেন ৪০০ টাকা কেজি দরে এক লাখ ১২ হাজার টাকায় মাছটি কিনে নেন।

Fish2

ক্রেতা সোহরাব হোসেন জাগো নিউজকে বলেন, বিশাল এক মাছ বাজারে এসেছে শুনে চলে এসেছি। মাছটি ৪০০ টাকা দরে কিনেছি। এখন এটি কেটে কেটে ৫০০-৬০০ টাকা দরে বিক্রি করবো।

ওমর ফারুক নামের একজন বলেন, ‘আমার ছোট ছেলে মাইকিং শুনে মাছটি দেখতে চেয়েছিল। ও এখন পর্যন্ত এতবড় মাছ দেখেনি। তাই ওকে দেখানোর জন্য এখানে নিয়ে এসেছি। মাছটি সত্যিই অনেক বড়।’

বরগুনা মৎস্য কর্মকর্তা বিশ্বজিৎ কুমার দেব জাগো নিউজকে বলেন, প্রজননে বিঘ্ন ঘটায় শাপলাপাতা মাছ এখন প্রায় বিলুপ্তির পথে। এ মাছে প্রচুর পরিমাণ পুষ্টিগুণ রয়েছে। বিলুপ্ত প্রায় এরকম আরও কয়েক প্রজাতির সামুদ্রিক মাছ রয়েছে, যা ধরতে জেলেদের নিরুৎসাহিত করা হয়।

এসআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]